ইমরান খানকে সৎ হওয়ার পরামর্শ দিলেন রেহাম

লন্ডন: দেশ বা সমাজ বদল করার আগে নিজেকে সৎ হতে হয়। এমনই মনে করেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রাক্তন স্ত্রী রেহাম খান। প্রাক্তন স্বামীকে সেই ‘সৎ’ হওয়ার পরামর্শ দিয়েই ‘আক্রমণ’ করেছেন রেহাম।

রবিবার গার্ডিয়ান পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে রেহাম খানের সাক্ষাতকার। সেখানেই ইমারান সম্পর্কে তাঁর অবস্থান স্পষ্ট করে দিয়েছেন তিনি। নিজের লেখা নতুন বইতেও প্রাক্তন স্বামী সেই দাম্পত্য জীবন সম্পর্কে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন রেহাম খান।

আরও পড়ুন- ছোড়দি আর রাখী পরায় না, মন খারাপ রুপান্তরকামী প্রীতির

- Advertisement -

০১৫ সালে ইমরানের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল রেহাম খানের। কিন্তু, মাত্র ১০ মাস পর সেই বিয়ে ভেঙে যায়। রেহাম বলেছেন, ইমরানের সঙ্গে বিয়ে হওয়ার পর জীবন এতটাই দুর্বিষহ হয়ে পড়েছিল যে সম্পর্ক ছিন্ন করা ছাড়া তাঁর সামনে আর কোনও বিকল্প ছিল না।

গত মাসে পাকিস্তানে হয় সাধারণ নির্বাচন। সেই ভোটে একক বৃহত্তম দল হিসেবে উঠে আসে ইমরান খানের তেহরিক-ই-ইনসাফ। প্রাথমিক অবস্থায় সংখ্যা গরিষ্ঠতা না থাকলেও পরে তা পূরণ হয়ে যায়। সম্প্রতী পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথও নিয়েছেন বিশ্বকাপ জয়ী ক্রিকেট তারকা ইমরান খান। পাকিস্তানের উন্নতির জন্য তাঁর নানাবিধ পরিকল্পনার কথা বলেছেন তিনি।

আরও পড়ুন- পুরোহিতদের পর কেষ্টোর গড়ে সম্বর্ধনা আদিবাসী মোড়লদের

গার্ডিয়ান পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুসারে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে একগুচ্ছ উপদেশ দিয়েছেন রেহাম। তিনি বলেছেন, “আগে নিজেকে বদলান, তারপর দেশকে বদলাবেন। যা উপদেশ দিতে চান, তা আগে নিজে করে দেখান। আগে নিজে সৎ হোন।”

সাম্প্রতিককালে প্রকাশিত হয়েছে পেশায় সাংবাদিক রেহাম খানের নতুন বই। সেই বইতেও কড়া ভাষায় আক্রমণ করেছেন ইমরানকে। তিনি লিখেছেন, “ইমরান খান অসংযমী জীবনযাপনে অভ্যস্ত এবং নিয়মিত ড্রাগ সেবনকারী।”

রেহাম আরও লিখেছেন, “আমি ইমরান খানকে বিয়ে করেছিলাম। কিন্তু, ও আমাকে বিয়ে করেনি। ওঁর কাছে বিয়ের সংজ্ঞা আলাদা। আমি জানি না, কে ওঁকে আমাকে বিয়ে করতে বলেছিল? সর্বসমক্ষে আমাদের সম্পর্ক আপাত দৃষ্টিতে ছিল সহজ ও স্বাভাবিক। ও আমার প্রশংসা করত। আমি কীভাবে দক্ষতার সঙ্গে সংসার করি, আমার রাজনৈতিক প্রজ্ঞা, আমার ধর্মীয় বিশ্বাস প্রমুখ। সেভাবে আমাদের মধ্যে কোনও ঝগড়া হত না। আমিও প্রাক্তন স্ত্রী ও সন্তানদের সঙ্গে এবং ভাইবোনদের সঙ্গে ওঁর সম্পর্কের বিষয়ে কখনও হস্তক্ষেপ করিনি। কিন্তু, আমার সম্পর্কে যে গুজব ছড়িয়েছিল, তার বিরুদ্ধে ইমরান কিন্তু কখনও মুখ খোলেনি।”

Advertisement ---
---
-----