পিওনের ৬২টি খালি পদে আবেদন ৩ হাজার পিএইচডির

লখনউ: সরকারি চাকরির বিজ্ঞপ্তি বেরিয়েছে৷ উত্তরপ্রদেশে পিওনের ৬২টি শূন্যপদে নিয়োগ হবে৷ তারজন্য আবেদন পড়েছে ৯৩হাজার৷ যেখানে এই চাকরির জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতা প্রয়োজন পঞ্চম শ্রেণি পাস, সেখানে স্নাতক, স্নাতকত্তোর এমনকী পিএইচডি ডিগ্রিধারীরাও আবেদন করেছেন৷ আবেদনের বহর দেখে এখন আর অবাক হন না নিয়োগ কর্তারা৷ জানিয়েছেন, ঝাড়ুদারের জন্য ডিগ্রিধারীরা আবেদন করতে পারলে পিওনের জন্য কেন পারবে না?

আবেদনপত্র খতিয়ে দেখার পর জানা গিয়েছে ৬২টি শূন্যপদের জন্য ৯৩ হাজার আবেদন পড়েছে৷ অর্থাৎ প্রতি পদের জন্য আবেদনকারীর সংখ্যা দেড় হাজার৷ ৯৩ হাজারের মধ্যে অধিকাংশ উচ্চশিক্ষিত৷ তবুও পিওনের মত পদে চাকরির জন্য ৫০ হাজার স্নাতক ডিগ্রিধারী, ২০ হাজার স্নাতকত্তোর ডিগ্রিধারী আবেদন করেছে৷ পিএচডি করেছেন এমন অনেক আবেদনও জমা পড়েছে৷ তাদের সংখ্যা ৩ হাজার৷

কেন সামান্য পিওনের পদের জন্য এত আবেদন? উত্তর দিলেন এমটেক পাশ রজত মিশ্রা৷ আবেদনকারীর মধ্যে তিনিও একজন৷ জানিয়েছেন, ‘‘সরকারি চাকরি তো সরকারি চাকরি৷ একবার পেয়ে গেলে ভবিষ্যত নিয়ে কোনও চিন্তা করতে হবে না৷ অন্যদিকে আইটি সেক্টরে চাকরির জন্য হয় দিল্লি নয় বেঙ্গালুরু যেতে হবে৷ ওখানে যা মাইনে দেবে তা বাড়ি ভাড়া এবং খাবারের বিল দিতেই শেষ হয়ে যাবে৷ মাসের শেষে এক পয়সাও হাতে থাকবে না৷ পিওনের পদে চাকরি পেলে অন্তত এখানে থাকতে পারব৷ তাই আবেদন করেছি৷’’

- Advertisement -

সামান্য পিওনের জন্য পিএইচডি, এম.টেকদের আবেদন দেখে নিয়োগকর্তাদের চমকে যান না৷ একজন জানিয়েছেন, গত কয়েকবছর ধরে এই ট্রেন্ড শুরু হয়েছে৷ রিসার্চ স্কলার, বিজনেজ স্কুল থেকে পাশ করা পড়ুয়ারা পিওন ও ঝাড়ুদারের মতো পেশায় কাজ করতে চাইছে৷ অতীতের এক উদাহরণ তুলে ধরে তিনি জানান, ২০১৫ সালে লখনউতে ৩৬৮টি পিওনের পদের জন্য ২৩ লক্ষ আবেদন জমা পড়েছিল৷ তাদের মধ্যে ২৫০ জন ডক্টরেট৷ আবার কর্মক্ষেত্রে একটু বেশি শিক্ষিতদের কদরও যথেষ্ট৷ ওই কর্তাই জানান, এরা খুব পেশাদার হয়৷ ভবিষ্যতে ওদের গুরুত্বপূর্ণ পদেও বসানো যাবে৷

Advertisement ---
---
-----