নয়াদিল্লি: চিনের ইগুয়র সংগঠনের নেতা দলকুন ইসাকে এই সপ্তাহেই ভারতে আসার ছাড়পত্র দিয়েছিল দিল্লি। অবশেষে কূটনৈতিক ভুল স্বীকার করে ইসার ভিসা নাকজ করে দিল ভারত। ভারতের  নিষেধাজ্ঞায় ইগুয়র নেতা  হতাশা প্রকাশ করে বলেছেন যে, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে এর আগেও ভ্রমণ করেছেন তিনি। সেইক্ষেত্রে কোনও অসুবিধা হয়নি।

ইসার ভারতে আসার উদ্দেশ্য ছিল ধর্মগুরু দলাই লামার সঙ্গে সাক্ষাৎ করা। কিন্তু  দিল্লির এই পদক্ষেপে ইতোমধ্যেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছিল বেজিং। তাদের বক্তব্য ছিল যে, ইসার নামে ইন্টারপোলের রেডকর্নার জারি রয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার যখন যাচাই করে জানতে পারে যে এই দাবি সত্যি, ইসার নামে ইন্টারপোলের রেডকর্ণার জারি করা আছে। তখন তাদের তরফ থেকে ইসাকে ভিসা দেওয়ার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। তারা আরও জানান যে, এক সপ্তাহ আগে ইসা  কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে  লিখিত ভাবে জানাতে চেয়েছিল যে, ভারতে তিনি এলে তাঁকে গ্রেফতার করা হবে না সেই বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে সরকারকে। কিন্তু সরকারের পক্ষ থেকে তাকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে, দিল্লি  ইন্টারপোলের অর্ডারকে মান্যতা দেবে এবং  ইসা ভারতে এলে তাকে গ্রেফতার করা হতে পারে।

Advertisement

ইগুয়র নেতাকে দিল্লির ভিসা দেওয়ার পেছনে নানা গুঞ্জন শুরু হয়েছিল কূটনৈতিক মহলে। তাদের বক্তব্য ছিল যে, ভারতের তরফ থেকে বলা হয়েছিল জইস-ই-মহম্মদ প্রধান মাসুদ আজহারকে রাষ্ট্রসংঘের তরফ থেকে নজরবন্দী করতে হবে। কিন্তু চিন ভেট ক্ষমতা প্রয়োগ করে ভারতের সেই দাবির বাস্তবায়ন হতে দেয়নি। ফলে দিল্লি বেজিং-এর সেই পদক্ষেপের জবাব দিয়েছিল বলেই মত ছিল কূটনৈতিক মহলে।

প্রসঙ্গত, দলকুন ইসা হলেন চিনের ইগুয়র সংগঠনের নেতা। যিনি বর্তমানে জার্মানীতে থাকেন। আর এই চিনের ইগুয়র সংগঠন দীর্ঘদিন ধরে চিনা সরকারের সঙ্গে লড়াই চালাচ্ছে তাদের সংরক্ষণের দাবতে।

ভারতীয় সেনা সংক্রান্ত আরও জনপ্রিয় প্রতিবেদন

১. আমেরিকার কাছ থেকে ৪০টি সশস্ত্র ড্রোন কিনছে ভারত

২. এক দশক পর বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট পাচ্ছে ভারতীয় সেনা

৩. বিশ্বসেরা বিধ্বংসী ১১-র তালিকায় তেজস

৪. লুকিয়ে থাকা শত্রুদের চিহ্নিত করতে সেনাবাহিনীতে নয়া যুক্তি

৫. পাক সীমান্তের আকাশে আগুন জ্বালাল ভারত

৬. ফেসবুক-উইচ্যাটে সেনাবাহিনীতে নজরদারি চালাচ্ছে পাকিস্তান!

৭. এক পলকে মার্কিনতরী ধ্বংস করতে পারে চিন-রাশিয়া

৮. রাশিয়ান আর্মিতে যুক্ত হচ্ছে ডলফিন সেনা

৯. প্রত্যেক জওয়ানের কাঁধে থাকে ৪০ কেজির বোঝা’

১০. শত্রুপক্ষের উপর পরমাণু হামলা চালাতে পুরোপুরি প্রস্তুত ভারতীয় সেনা

----
--