ওয়াশিংটন: যে কোনও দেশের জন্য এই তকমা পাওয়াটা দুঃস্বপ্নের। আর সেই জায়গাতেই দীর্ঘদিন ধরে ছিল ভারত। বিশ্বের সবথেকে বেশি দরিদ্র জনসংখ্যার দেশ ছিল ভারত। অবশেষে সেই তকমা ঘুচল ভারতের কপাল থেকে। ভারতকে ছাপিয়ে গেল নাইজেরিয়া।

Brookings Institution-এর একটি সম্প্রতি সমীক্ষায় উঠে এসেছে, যে নাইজেরিয়া এই ক্ষেত্রে ভারতের থেকেও আগে। অর্থাৎ বর্তমানে নাইজেরিয়াই সবথেকে বেশি দরিদ্র জনসংখ্যার দেশ। এখানে সবথেকে বেশি গরিব মানুষ বসবাস করেন। যেসব ১.৯০ ডলারেরও কমে দিন গুজরান করেন, তাদেরই এই আওতায় ফেলা হচ্ছে। এইসব মানুষের বেঁচে থাকার ন্যুনতম প্রয়োজন, অর্থাৎ খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থানেরও অভাব রয়েছে।

এই রিপোর্ট তৈরি হয়েছে World Poverty Clock-এর উপর ভিত্তি করে, যা প্রত্যেক মুহূর্তে বিশ্বের সব দেশের অগ্রগতির খবর দিচ্ছে। সেখানেই দেখা যাচ্ছে, গত সোমবার দরিদ্র নাগরিকের সংখ্যায় ভারতকে ছাপিয়ে গিয়েছে নাইজেরিয়া। ভারতে অতি দরিদ্র মানুষের সংখ্যা ৭ কোটি ৬০ লক্ষ আর নাইজেরিয়ায় এই সংখ্যাটা ৮ কোটি ৭০ লক্ষ।

রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, সংখ্যার ফারাকটাও কিন্তু বাড়ছে। অর্থাৎ, ভারতে দরিদ্রের সংখ্যা ক্রমশ কমছে। প্রতি মিনিটে ৪৪ জন করে কমছে সংখ্যাটা। Brookings Institution-এর ডিরেক্টর অফ গ্লোবাল ইকনমি অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম হোমি খারাস বলেন, ‘এটা ভারতের জন্য ভাল খবর। তবে আফ্রিকার সজাগ হওয়ার সময় এসেছে।’

তিনি আরও বলেন, বিশ্বের অতি দরিদ্র জনসংখ্যার দুই তৃতীয়াংশই আফ্রিকার। ২০৩০-এর মধ্যে সেই সংখ্যাটা আরও বাড়বে বলে মনে করছেন তিনি। তবে এশিয়ার দেশগুলোতে ক্রমশ কমছে সেই সংখ্যাটা।

বর্তমানে ভারতের মোট জনসংখ্যা ১৩০কোটির কিছু বেশি। এর মধ্যে ৫ শতাংশ অতি দরিদ্র। অর্থাৎ ভারত ক্রমশ দারিদ্রের যুদ্ধে জয়ী হচ্ছে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

----
--