রাহুল-পন্তের লড়াইয়েও হার বাঁচল না ভারতের

লন্ডন: দ্বিতীয় নতুন বল নিয়ে ভারতের ম্যাচ ড্রয়ের স্বপ্নে জল ঢেলে দিল ইংরেজ বোলাররা৷ ওভালে ভারতকে ১১৮ রানে হারিয়ে পাঁচ টেস্টের সিরিজ ৪-১ জিতে নিল ইংল্যান্ড৷ সেই সঙ্গে অ্যালেস্টার কুককে গ্র্যান্ড ফেয়ারওয়েল দিল রুটবাহিনী৷ শেষ টেস্টে সেঞ্চুরি করে ক্রিকেটকে গুডবাই জানালেন সদ্যপ্রাক্তন ইংরেজ ওপেনার৷

ষষ্ঠ উইকেটে লোকেশ রাহুল ও ঋষভ পন্ত ২০৪ রান যোগ করে ম্যাাচ ড্রয়ের সম্ভাবনা জাগালেও ইংল্যান্ড দ্বিতীয় নতুন বল নিতেই ভারতের সব আশা কপূরের মতো উড়ে যায়৷ তবে ভারত ম্যাচ হারলেও ওভালে রাহুল ও পন্তের লড়াকু ইনিংস প্রশংসা আদায় করে নেয়৷ ৪৬৪ রান তাড়া করতে নেমে ৩৪৫ রানে থেমে যায় ভারতের লড়াই৷ ম্যাচের সেরা বিদায়ী টেস্টে শতরানকারী কুক৷ আর যুগ্মভাবে সিরিজের সেরা হয়েছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং নবাগত ইংরেজ পেসার স্যাম কুরান৷

ওভাল টেস্টে ভারতের পাওনা পন্ত৷ ইংল্যান্ডের মাটিতে কঠিন পরিস্থিতিতে ছক্কা মেরে সেঞ্চুরি করে নজর কাড়েন ভারতের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান৷ তার আগে টেস্ট কেরিয়ারে পঞ্চম সেঞ্চুরি করে দলে নিজর জায়গা মজবুত করেছেন রাহলু৷ চা-বিরতি পর্যন্ত ভারতের স্কোর পাঁচ উইকেটে ২৯৮৷ রাহুল ও ঋষভ পন্তের ১৭৭ রানের অবিভক্ত পার্টনারশিপে লড়াইয়ে ফেরে ভারত৷ লাঞ্চ থেকে চা-বিরতিতে কোনও উইকেট না-হারিয়ে ১৩১ রান তোলে টিম কোহলি৷ শেষ দু’ঘণ্টা লড়াই করতে পারলে ম্যাচ ড্র করে কিছুটা হলেও মুখরক্ষা করতে পারত ভারত৷ কিন্তু শেষ সেশনে ভারতের লড়াই শেষ করে দেন অ্যান্ডারসন-কুরানরা৷ সেই সঙ্গে এদিন গ্রেন ম্যাকগ্রাকে টপকে টেস্ট ক্রিকেটে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী পেসার হন জিমি৷

- Advertisement -

সোমবার দ্বিতীয় ইনিংসে আট উইকেটে ৪২৩ রানে ডিক্লেয়ার্ড দিয়েছিল ইংল্যান্ড৷ প্রথম ইনিংসে ৪০ রানে এগিয়ে থাকার সুবাদে ভারতের সামনে জয়ের টার্গেট ছিল ৪৬৪ রানে৷ কিন্তু শুরুতেই ভারতীয় ইনিংসের তিন উইকেট তুলে নিয়ে জয়ের স্বপ্ন দেখতে শুরু করে রুটবাহিনী৷ মাত্র দু’ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন ভারতের তিন ব্যাটসম্যান (শিখর ধাওয়ান ১, বিরাট কোহলি ০, চেতেশ্বর পূজারা ০)৷ কিন্তু সেখান থেকে ভারতীয় ইনিংসকে টেনে নিয়ে যান অজিঙ্ক রাহানে এবং রাহুল৷ চতুর্থ উইকেটে ১১৮ রান যোগ করে রাহুল-রাহানে জুটি৷ তার পর দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে ফের চাপে ভারত৷

১১৮ বলে ১৪টি বাউন্ডারি ও তিনটি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির স্বাদ পান পন্ত৷ ভারতের প্রথম উইকেটকিপার হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে সেঞ্চুরি করে নজির গড়েন দিল্লির এই তরুণ তুর্কি৷ শুধু তাই নয়, ভারতের চতুর্থ ক্রিকেটার (কপিল দেব, হরভজন সিং, ইরফান পাঠানের পর) হিসেবে ছক্কা মেরে টেস্টে সেঞ্চুরি করলেন পন্ত৷

Advertisement
---