লন্ডন: বুধবার টেস্ট সিরিজে ১-৪ ব্যবধানে হেরে ইংল্যান্ডের কাছে পর্যুদস্ত হতে হয়েছে ভারতকে। তবে এই হারে আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়ে অবস্থানগত কোনও পরিবর্তন হল না কোহলি ব্রিগেডের। ইংল্যান্ডের কাছে সিরিজ খোয়ালেও ১১৫ পয়েন্ট নিয়ে আইসিসি টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষেই রইল তারা। তবে টেস্ট সিরিজ হারের ফলে ১০ পয়েন্ট খোয়াতে হয়েছে কোহলিদের।

অন্যদিকে পাঁচ নম্বরে থেকে সিরিজ শুরু করা ইংল্যান্ড এক ধাপ এগিয়ে এখন চার নম্বরে। ভারতকে ৪-১ ব্যবধানে হারিয়ে ৮টি মূল্যবান পয়েন্ট ঝুলিতে এসেছে রুটদের। ৯৭ থেকে বেড়ে তাঁদের পয়েন্ট এখন ১০৫। একই পয়েন্ট (১০৬) নিয়ে দ্বিতীয় এবং তৃতীয়স্থানে রয়েছে যথাক্রমে দক্ষিণ আফ্রিকা এবং অস্ট্রেলিয়া। অর্থাৎ দ্বিতীয়স্থানে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকার চেয়ে এখনও ৯ পয়েন্ট এগিয়ে কোহলিরা। থ্রি লায়ন্সদের থেকে ৩ পয়েন্ট কম নিয়ে র‍্যাঙ্কিংয়ে এক ধাপ নীচে নেমেছে নিউজিল্যান্ড। সদ্য প্রকাশিত র‍্যাঙ্কিংয়ে পঞ্চম স্থানে রয়েছে তারা।

Advertisement

ওভালে পঞ্চম তথা শেষ টেস্টে ইংল্যান্ডের কাছে ১১৮ রানে পরাজিত হয়েছে ভারত। ৪৬৪ রানের বিশাল রান তাড়া করতে নেমে ৩৪৫ রানেই শেষ হয়ে ভারতের ইনিংস। লোকেশ রাহুল এবং ঋষভ পন্তের জোড়া শতরানও হার বাঁচাতে পারেনি দলের। তবে এই হারে হতাশ নন ভারত অধিনায়ক। ম্যাচ শেষে গতকাল তিনি জানান, ‘ফলাফল দিয়ে আমাদের পারফরম্যান্স বিচার করলে ভুল হবে।’ এমনকি এই দলে বিশেষ কিছু পরিবর্তন করারও পক্ষপাতী নন তিনি।

ম্যাচ হারলেও চতুর্থ ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নজর কেড়েছেন দুই ভারতীয় ব্যাটসম্যান লোকেশ রাহুল এবং ঋষভ পন্ত। দুরন্ত ১৪৯ রানের ইনিংস রাহুলকে একলাফে তুলে এনেছে অনেকটাই। ১৬ ধাপ উপরে উঠে ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে ১৯ নম্বরে রয়েছেন তিনি। প্রথম উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান হিসেবে ইংল্যান্ডের মাটিতে সেঞ্চুরি করে র‍্যাঙ্কিংয়ে ৬৩ ধাপ এগোলেন পন্তও। শেষ টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে শুন্য রানে ফিরলেও ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষেই আছেন কোহলি।

অন্যদিকে মঙ্গলবার টেস্ট ক্রিকেটে পেস বোলার হিসেবে সর্বাধিক উইকেট শিকারি হয়েছেন জেমস অ্যান্ডারসন। টপকে গিয়েছেন ম্যাকগ্রাকে। দুরন্ত বোলিংয়ে আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়েও নিজের শীর্ষস্থান ধরে রেখেছেন জিমি।

----
--