শত্রুপক্ষের আকাশে এবার চালক ছাড়াই উড়বে তেজস

নয়াদিল্লি: সামরিক ক্ষেত্রে নিত্যনতুন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে চলেছে ভারত। এবার এক নয়া পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। ভারতের কমব্যাট এয়ারক্রাফট তেজসকে নিয়ে এই নয়া পরীক্ষা হয়ে। এই লাইট কমব্যাট এয়ারক্রাফটকে রূপান্তরিত করা হবে ড্রোনে। এই বিষয়ে চলছে জোরদার গবেষণা।

আরও পড়ুন: ‘যে কোনও দেশের যুদ্ধবিমানকে হেলায় হারাতে পারে ভারতের তৈরি তেজস’

তেজসকে ড্রোনে কনভার্ট করতে ইতোমধ্যেই গবেষণা শুরু করেছে একটি বিশেষ টিম। এয়ারক্রাফট নির্মাণকারী সংস্থা হিন্দুস্থান অ্যারোনটিক্স লিমিটেড মনে করছে, খুব কম সময়ের মধ্যেই এই কাজ সম্পূর্ণ হয়ে। পাশাপাশি, চেতক হেলিকপ্টারেরও একই রকম একটি ভার্সান তৈরি করা হবে বলেও জানিয়েছেন সংস্থার প্রধান টি সুবর্ণ রাজু।

- Advertisement -

আরও পড়ুন: ‘দক্ষিণ প্রহার’-এ ভারতীয় বায়ুসেনার শক্তি পরখ করল বিশ্ব

বায়ুসেনার তরফে ইতোমধ্যেই ওই সংস্থাকে ১২৩টি এলসিএ ফাইটার জেটের অর্ডার দেওয়া হয়েছে। আগামী কয়েক বছরে ভারতীয় বায়ুসেনার অন্তত ২০০টি যুদ্ধবিমানের প্রয়োজন পড়বে বলেও মনে করা হচ্ছে। মূলত সীমান্ত পেরিয়ে হামলা চালানোর জন্য এই ড্রোন ব্যবহার করা হয়ে। শত্রুপক্ষের এলাকায় ঢুকে পড়ার পর পাইলটদের প্রাণের ঝুঁকি থাকে। সেটা এড়াই এই ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: পরমাণু অস্ত্র নিয়ে পাকিস্তানের বাড়বাড়ন্ত ৮৪-তেই খতম করে দিত বায়ুসেনা

এছাড়াও ভারত AURA নামের একটি প্রজেক্টের কাজ করছে, যাতে কাভেরি ইঞ্জিন ব্যবহার করে কমব্যাট ড্রোন তৈরি করা হচ্ছে। যদিও সেই ড্রোন এখনও ডিজাইনের পর্যায়ে রয়েছে। তবে চালকবিহীন তেজস কিন্তু কোনোভাবেই আর্মি স্টিলথ ড্রোনের সমতুল্য নয়। উদাহরণস্বরূপ বলা যায়, আমেরিকা এরিয়াল টার্গেট প্র্যাকটিসের জন্য চালকবিহীন F-16 ব্যবহার করে।

আরও পড়ুন: হ্যাকারদের থেকে বাঁচতে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করবে ভারতীয় বায়ুসেনা

Advertisement ---
---
-----