স্বাধীনতার পর প্রথমবার কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে ‘যুদ্ধ’ করবে ভারত-পাক

নয়াদিল্লি: প্রথমবার আন্তর্জাতিক স্তরের কোনও সেনা মহড়ায় একইসঙ্গে অংশ নিতে চলেছে ভারত ও পাকিস্তান। চলতি বছরেই সেই হবে সেই কাউন্টার-টেরর এক্সারসাইজ। যেখানে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে একইসঙ্গে মহড়া করবেন দুই দেশের সেনাবাহিনী। ওই মহড়ায় অংস নিচ্ছে চিনও।

সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশনের অধীনে ওই মহড়ায় অংশ নেবে একাধিক দেশ। চিনের এই সিকিউরিটি গ্রুপটি ক্রমেই NATO-র প্রতিযোগী হয়ে ওঠার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

জানা গিয়েছে রাশিয়ার উরাল পাহাড়ে হবে সেই মহড়া। ওই সংস্থার সদস্য সব দেশই সেখানে অংশ নিতে পারবে। সরাসরি পাকিস্তানের নাম উল্লেখ না করে ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমন বলেন, ‘এসসিও-র অধিকাংশ দেশগুলোর সঙ্গে দারুণ সম্পর্ক ভারতের। প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে বন্ধু দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক মজবুত করতে চাই আমরা।’

- Advertisement -

সামরিক মহড়ায় এই প্রথমবার অংশ নিতে চলেছে দক্ষিণ এশিয়ার পরমাণু শক্তিধর রাষ্ট্রগুলো। গতবছরই এসসিও-তে সময়ের সদস্য হয়েছে পাকিস্তান ও ভারত। এই সামরিক মহড়ায় অংশ নেবে চিন ও রাশিয়া। সেনা মহড়ায় যোগ দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পাকিস্তানও।

স্বাধীনতার পর এই প্রথমবার ভারত ও পাকিস্তান কোনও একটি সেনা মহড়ায় অংশ নিচ্ছে। যদিও রাষ্ট্রসংঘের শান্তিরক্ষাবাহিনীতে একই সঙ্গে কাজ করে দুই দেশের সেনা জওয়ানেরা।

২০০১-এ সাংহাইতে এক সম্মেলনে তৈরি হয় এই ‘সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশন’। সেখানে উপস্থিত ছিলেন রাশিয়া, চিন, কাজাখাস্তান, তাজিকিস্তান, উজবেকিস্তানের প্রেসিডেন্টরা উপস্থিত ছিলেন।

Advertisement
-----