৫০০০ কোটি খরচে জাগুয়ারে দেড়গুণ শক্তিশালী ইঞ্জিন লাগাবে বায়ুসেনা

নয়াদিল্লি: বায়ুসেনার শক্তি বজায় রাখতে জাগুয়ার স্ট্রাইক এয়ারক্রাফট আপগ্রেড করছে এয়ার ফোর্স। অন্তত ছ’বছর ধরে এই প্রজেক্ট আটকে আছে। কিন্তু এবার আপগ্রেড না করা হলে স্কোয়াড্রনের শক্তি কমে আসবে। ফলে, বিষয়টিতে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। ৫০০০ কোটি টাকা খরচে ওইসব ফাইটার এয়ারক্রাফটে নতুন ইঞ্জিন লাগানো হবে বলে জানা গিয়েছে।

ইউপিএ আমলে অনুমোদন না পাওয়ায় স্কোয়াড্রনে নতুন ফাইটার জেট আসেনি। ফলে শক্তি কমে গিয়েছে। বর্তমানে ফাইটার স্কোয়াড্রনে ৩২টি যুদ্ধবিমান রয়েছে। আসলে ৪২টি যুদ্ধবিমান থাকার কথা। বায়ুসেনার জাগুয়ার বিমানের মোট পাঁচটি স্কোয়াড্রন রয়েছে। মার্কিন ফার্ম ‘হানিওয়েল’ থেকে ইঞ্জিন এনে লাগাতে হবে জাগুয়ারগুলিতে।

এক উচ্চপদস্থ আধিকারিক জানিয়েছেন, হানিওয়েলের সঙ্গে এই চুক্তি সংক্রান্ত সমস্ত সমস্যার সমাধান হয়েছে। দ্রুত এই চুক্তি কার্যকর হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। ভারতের জামনগর, গোরখপুর ও অম্বালায় থাকা ১০০-টিরও বেশি জাগুয়ার বিমানকে রি-ইঞ্জিন করা হবে বলে জানা গিয়েছে। বর্তমানে জাগুয়ারে রয়েছে রোলস-রয়েসের ৮০৪/৮১১ ইঞ্জিন। এবার সেই জায়গায় লাগানো হবে হানিওয়েলের F-125N ইঞ্জিন। বর্তমান ইঞ্জিনের তুলনায় দেড় গুন শক্তিশালী হবে নতুন ইঞ্জিন।

- Advertisement -

২০১১-র ১৯ ডিসেম্বর জাগুয়ার আপগ্রেডেশনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ইউপিএ সরকার। ২০১৭-র মধ্যে সেই কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল। সেই ডেডলাইন পার হয়ে গেলেও আর নতুন করে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

বিমানগুলি ৩০ বছরের পুরনো। তা সত্ত্বেও এগুলি এখনও যথেষ্ট ক্ষমতাশালী। ইঞ্জিন পাল্টালেই এগুলি বায়ুসেনার গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে উঠবে।

Advertisement ---
---
-----