নয়াদিল্লি: আর্থিক কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত পলাতক শিল্পপতি বিজয় মালিয়া এখন দেশে ফিরতে চান৷ শিল্পপতির ঘনিষ্ঠ মহল মারফত এমনটাই জানা গিয়েছে৷ আর্থিক কেলেঙ্কারির মামলায় অভিযুক্ত লিকার ব্যারন মালিয়ার ভারতে থাকা বিপুল সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টর৷ সেই সম্পত্তি ফিরে পাওয়ার রাস্তা খুঁজে বার করতে তাঁর ভারতে আসার ইচ্ছা৷ এমনই দাবি এক সর্বভারতীয় মিডিয়ার৷

আরও পড়ুন: আরএসএসের তরফে কোনও আমন্ত্রণ আসেনি রাহুলের কাছে, কংগ্রেস

Advertisement

যদিও সেই সম্পত্তি ফিরে পাওয়ার আশা অতীব ক্ষীণ৷ বলা ভালো একেবারেই নেই৷ কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিক জানিয়েছেন, দেশে থাকা মালিয়ার সব সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে৷ আর্থিক প্রতারণা রুখতে সরকার নতুন ফিউজিটিভ ইকোনমিক অফেন্ডার নামে কড়া আইন তৈরি করে৷

এই আইন অনুযায়ী, অভিযুক্ত দেশ ছেড়ে পালিয়ে গেলে তার সমস্ত সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হবে৷ সেই আইন মেনে এই সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে৷ আইন অনুযায়ী সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের তালিকায় চলে যে তা ফিরে পাওয়া অসম্ভব৷ সরকার এই সম্পত্তি অধিগ্রহণ করে প্রতারিতদের ক্ষতিপূরণ দেবে৷ এখনও অবধি ইডি মালিয়ার ১৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছে৷

আরও পড়ুন: চোকসিকে গ্রেফতার করার জন্য প্রয়োজন নেই ইন্টারপোল নোটিশের

২০০৫ সালে শুরু করা কিংফিশার এয়ারলাইন্সের জন্য নয় হাজার কোটি টাকা ব্যাংক থেকে ঋণ নেন বিজয় মালিয়া৷ কিন্তু ব্যাংকের ঋণ শোধ না করে ২০১৬ সালেই দেশ ছাড়েন তিনি। তার আগেই কিংফিশার এয়ারলাইন্স বন্ধ হয়ে গিয়েছিল৷ চালুর মাত্র সাত বছরের মধ্যেই বন্ধ হয়ে যায় কিংফিশার৷ অপরদিকে ব্যাংক ঋণ শোধ করতে না পেরে মালিয়া লন্ডন চলে যান৷ সেখানের এক আদালতে মালিয়ার প্রত্যর্পণ নিয়ে মামলা করেছে সিবিআই৷

----
--