ভারতীয় কোচের যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন ভিনেশের

নয়াদিল্লি: সদ্যসমাপ্ত এশিয়ান গেমসে কুস্তিতে দেশকে সোনা এনে দিয়েছেন তিনি। এশিয়াডে সোনা জয় তাঁকে আরও প্রত্যয়ী করে তুলেছে অলিম্পিকে পদক জয়ের বিষয়ে। কিন্তু ভিনেশ ফোগতের মতে অলিম্পিকে পদক আনতে গেলে ভারতীয় কোচেদের উপর ভরসা রাখলে চলবে না। প্রয়োজন বিদেশি কোচের।

তাঁর মতে, ‘ভারতীয় কোচেরা অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন তৈরি করার মত যথেষ্ট নন।’ মঙ্গলবার স্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়ার একটি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে এশিয়াডে সোনাজয়ী মহিলা কুস্তিগীর জানান, ‘ভারতীয় কোচেরা হয়তো সফল হচ্ছেন। কিন্তু অলিম্পিকের মত একটি ইভেন্টে প্রতিযোগীতা অনেক বেশি মাত্রায় থাকে। সেখানে ভালো ফল করতে গেলে আমাদের বিদেশি কোচের প্রয়োজন। গতি, শক্তি কিংবা স্কিল গেমের বিভিন্ন বিষয়গুলি নিয়ে প্রত্যেকদিন তারা নিত্যনতুন পরিকল্পনা করেন।

২০১৪ এবং ২০১৮ কমনওয়েলথ গেমসের সোনাজয়ী এশিয়াডে সোনা জয়ের অধরা স্বপ্ন পূর্ণ করেছেন জাকার্তায়। পাখির চোখ এখন ২০২০ অলিম্পিক। টোকিও থেকে পদক আনতে বদ্ধপরিকর ভিনেশ। সেকারণেই নতুন প্রশিক্ষকের খোঁজও শুরু করে দিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে হাঙ্গেরির প্রশিক্ষক ওয়েলার আকোর প্রশংসা শোনা গিয়েছে ফোগতের গলায়। এশিয়ান গেমস শুরুর আগে আকোর কিছু নির্দেশ তাঁকে সোনা জিততে সাহায্য করেছে বলে জানান হরিয়ানার এই কুস্তিগীর । ভিনেশের কথায়, ২০২০ টোকিও থেকে পদক আনতে হলে ওয়েলার আকোর মতই কাউকে প্রয়োজন।

- Advertisement -

২০১৬ অলিম্পিকে তাঁর হতাশাজনক পারফরম্যান্স সম্বন্ধে বলতে গিয়ে ভিনেশ জানিয়েছেন, ‘২০১৬ রিও অলিম্পিক আমায় অনেক কিছু শিখিয়েছে। রিও-তে আগ্রাসী মনোভাবের ফসল আমায় দিতে হয়েছিল। কিন্তু প্রতিপক্ষকে কিভাবে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিতে হয়, সেটা এখন শিখে গিয়েছি।’ তবে টোকিও-র প্রস্তুতি হিসেবে আগামী মাসে শুরু হতে চলে ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপ থেকেও পদক জিততে মরিয়া ফোগত।

২০-২৮ অক্টোবর বুদাপেস্টে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপ। ভিনেশ জানিয়েছেন, ‘বুদাপেস্টে প্রথমবারের জন্য সোনা জেতাই আমার লক্ষ্য। সোনা জিতেই দুর্দান্তভাবে মরশুম শেষ
করতে চাই।’

Advertisement ---
-----