ইন্দো-মার্কিন বিশাল নৌমহড়া নিয়ে ভারতকে সতর্কবার্তা চিনের

নয়াদিল্লিঃ   ভারত-চিন সীমান্তে উত্তেজনার মধ্যে ভারত মহাসাগরে বিশাল সামরিক মহড়ায় নামছে ভারত। আগামীকাল সোমবার থেকে ভারত মহসাগরে শুরু হচ্ছে আমেরিকার সঙ্গে সামরিক মহড়া ভারতের। বিশাল এই মহড়ায় অংশ নিচ্ছে জাপানও। ইতিমধ্যে আমেরিকা এবং জাপানের একাধিক যুদ্ধজাহাজ আসতে চলেছে ভারত মহাসাগরে। বিশাল এই নৌমহড়া নিয়ে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে চিনের। কারণ, ইতিমধ্যে এই সামরিক মহড়া নিয়ে হুঁশিয়ারি দিয়েছে চিন। চিন সরকারের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, তৃতীয় কোনও দেশ এই মহড়ার লক্ষ্য নয় বলেই আশা করছে তারা। চিন আঞ্চলিক শান্তি ও নিরাপত্তার অনুকূল পরিবেশ গড়ে তোলার কথাও বলেছে। চিনের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র জেং শুয়াং বলেছেন, সংশ্লিষ্ট দেশগুলির স্বাভাবিক সম্পর্ক ও সহযোগিতায় আপত্তির কিছু নেই। শুধু তাই নয়, চিনের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যেই এই মহড়া যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, ১৯৯২-তে শুরু হয় এই মালাবার মহড়া। প্রথমে ভারত ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এই মহড়ায় অংশ নিত। ২০১৪ থেকে মহড়ায় যোগ দিয়েছে জাপান। বিতর্কিত দক্ষিণ চিন সাগরের কাছেই ভারত মহাসাগরে এই মহড়া হয়। দক্ষিণ চিন সাগরকে তাদের অধিকারভূক্ত বলে দাবি করে চিন। ফলে, বিশাল এই নৌমহড়া নিয়ে বেশ চিন্তাতেই থাকে চিন। তবে ভারত-চিন সীমান্তে উত্তেজনার মধ্যে এই মহড়ায় আরও চিন্তা বেড়েছে বেজিংয়ের।

মালাবার মহড়ায় অংশ নেমে ১২ টিরও বেশি যুদ্ধ জাহাজ , ডুবোজাহাজ ও বিমান। ভারত মহাসাগর ও প্রশান্ত মহাসাগরে সম্ভাব্য টহলদারি সহ যৌথভাবে কাজ করার লক্ষ্যেই তিনটি দেশের শক্তিশালী নৌবাহিনীর এই মহড়ায় অংশ নিচ্ছে।

Advertisement
---