যাত্রীদের ব্যবহারে হতাশ রেলমন্ত্রক

নয়াদিল্লি: পরিচ্ছন্নতা নিয়ে অভিযোগ উঠেছে একাধিকবার৷ যাত্রীদের অভিযোগকে গুরুত্ব দিয়ে সময়ের সঙ্গে ইতিবাচক পরিবর্তন এনেছে রেল কর্তৃপক্ষ৷ বদল আনা হয়েছে রেলের কামরা থেকে প্রসাধনী কামরাগুলিতেও৷ কামরা সাজাতে ব্যবহার করা হয়েছে আধুনিক প্রযুক্তিকে৷ তবে, রেলের এই প্রচেষ্টাকে অসফল করল রেল যাত্রীরাই৷ সম্প্রতি, এমনই ছবি দেখা গিয়েছে মুম্বই-ফিরোজপুর পাঞ্জাব মেলে৷ কিছুদিন আগেই রেলের (পাঞ্জাব মেল) সমস্ত কামরাগুলিকে টেলে সাজিয়েছিল কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রক৷

ছবিটা ছিল একেবারে অন্যরকমের৷ প্রসাধনী কামরার মেঝে এবং দেওয়ালগুলিতে ছিল আধুনিক এবং মানানসই টাইলস৷ এছাড়া, সুরাহা করা হয়েছিল দীর্ঘদিনের জলসমস্যারও৷ পরিকল্পনা ছিল, গ্রাহকদের থেকে নেওয়া হবে ফিডব্যাক৷ যাতে প্রকল্পটির বৃহদায়ন সম্ভব হতে পারে৷ কিন্তু, রেলের এই উদ্যোগটিকে ব্যর্থ করেছে রেলের নিত্যযাত্রীরাই৷ তবে, রেলমন্ত্রক যাত্রীদের বার বার সহযোগিতার অনুরোধ জানিয়েছে৷

পরিবর্তনের এই পদক্ষেপটির কী প্রয়োজন ছিল? থাকলেও তা কতটা যুক্তিসঙ্গত? এমনই প্রশ্নের মুখে বারে বারে পড়েছে কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রক৷ গত সপ্তাহে প্রসাধনী কামরাতে বসানো নতুন বেসিনগুলিকে একেবারে নিশ্চিহ্ন করেছেন যাত্রীরা৷ কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রক জানিয়েছে, ‘যাত্রীদের চাহিদাকে গুরুত্ব দিয়েই পাঞ্জাব মেলের কামরাতে বসানো হয়েছিল উন্নতমানের টাইলস, বেসিন, আধুনিক সিট ইত্যাদি৷ প্রথম দুমাস ভালভাবেই কাজ করেছিল উদ্যোগটি৷ এরপরই ট্রেন থেকে চুরি যেতে থাকে জলের ট্যাপ এবং মাগ৷ ধীরে ধীরে আরও ভগ্নপ্রায় হতে শুরু করে রেলের অন্যান্য আধুনিক পরিষেবাগুলি’৷

Advertisement ---
---
-----