ভদোদারা: পুরনো বোতলও হতে পারে আয়ের মাধ্যম৷ প্লাস্টিকের অপচয় বন্ধের জন্যই উদ্যোগটি নিয়ে আসছে রেল মন্ত্রক৷ বাস্তবায়নের উদারহণ দেখা গেল ভাদোদারা রেলওয়ে স্টেশনে৷ বুধবার ভাদোদারা স্টেশনে প্রথম প্লাস্টিক বটল ক্রাসার বসনো হয়৷ রেল মন্ত্রক জানিয়েছেন, দেশের আরও বেশ কিছু স্টেশনে বসানো হবে এই মেশিনটি৷

রিপোর্ট বলছে, যাত্রীরা বোতল প্রতি পাবেন পাঁচ টাকা৷ তবে, তার জন্য অবশ্য প্রয়োজন পড়বে মোবাইল নম্বরের৷ কারণ, পেটিএমের মাধ্যমে যাত্রীরা টাকাটি পাবেন৷ বেঙ্গালুরুতে ইতিমধ্যেই পরিকল্পনাটি বাস্তবায়িত হতে দেখা গিয়েছে৷ সংবাদ মাধ্যম একটি রিপোর্ট প্রকাশ করছে৷ যেখানে উঠে এসেছে আরও কয়েকটি স্টেশনের নাম৷ তার মধ্যে যশবন্তপুর ক্যান্টনমেন্ট এবং কৃষ্ণরাজাপুরম স্টেশন অন্যতম৷ আমেদাবাদ, পুনে, মুম্বই সহ একাধিক শহরে প্রকল্পটি বাস্তবায়নের চেষ্টা চলছে৷

প্রত্যেকটি মেশিনের জন্য খরচ হয়েছে ৪.৫ লক্ষ টাকা৷ মেশিনটি এমনভাবে তৈরি হয়েছে যেখানে পুরনো বোতল মেশিনে প্রবেশ করানো মাত্র সুক্ষ প্লাস্টিক কণায় পরিণত হবে সেটি৷ ক্যাশব্যকের সুবিধাটি আরও বেশি পরিমানে সাধারণ মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে মেশিনটি ব্যবহারের জন্য৷ ২০২২ সালের মধ্যে ভারতকে প্লাস্টিক-মুক্ত দেশে পরিণত করার লক্ষ্য রাখছে রেল মন্ত্রক৷

রেলওয়ে চত্বরকে প্লাস্টিকমুক্ত করতে রেল এনেছে উদ্যোগটি৷ পরিবেশ দিবসের দিন রেল যাত্রীদের পরিচয় করিয়েছে ইকো-ফেন্ডলি প্লাস্টিক প্লেটের সঙ্গে৷ রেলওয়ে মন্ত্রী পীযূস গোয়েল একটি ট্যুইট করেন৷ তিনি লেখেন, বিশ্ব পরিবেশ দিবসে দেশকে প্লাস্টিক দূষণমুক্ত করতে এটি একটি ছোট পদক্ষেপ৷

----
--