লেহ: ‘ভারতের সার্বভৌমত্ব রক্ষা করতে আমরা প্রতিশ্রুতি বন্ধ’৷ রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়ার পরে প্রথমবার লাদাখ সফরে গিয়ে জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ৷ একদিকে চিনের সঙ্গে উত্তেজক সম্পর্ক, অন্যদিকে সর্বক্ষণ ছায়া যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়া পাকিস্তান৷ এমত পরিস্থিতিতে লাদাখে গিয়ে ভারতীয় সেনার সর্বাধিনায়কের এমন মন্তব্য যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে আন্তর্জাতিক রাজনৈতিক মহল৷

রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ যখন চিন ও পাকিস্তানকে নাম না করে হুঁশিয়ারি দিচ্ছেন তখন সেখানে উপস্থিত ছিলেন সেনা প্রধান বিপিন রাওয়াত৷ নিয়ন্ত্রণ রেখা ও প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার নিরাপত্তায় থাকা জওয়ানদের মনোবল চাঙ্গা করতে পূর্ববর্তী বিভিন্ন যুদ্ধের কথা উল্লেখ করেন রাষ্ট্রপতি৷ তিনি জানিয়েছেন, ১৯৪৭ কাশ্মীর বিবাদ, ’৬২-র চিনা যুদ্ধ, ’৭১ ও ’৯৯ কার্গিল যুদ্ধে বীরত্বের পরিচয় দিয়েছে ভারতীয় সেনা৷ লাদাখে আবহাওয়ার খামখেয়ালি পনার মধ্যেই জওয়ানরা নিজের জীবনকে বাজি রেখে যেভাবে দেশের সেবায় কাজ করছেন তার ভূয়সী প্রশংসা করেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ৷

সোমবার রাষ্ট্রপতিকে লেহ বিমানবন্দরে স্বাগত জানিয়েছিলেন জম্মু ও কাশ্মীরের রাজ্যপাল এন এন ভোরা, মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি ও ভারতীয় সেনাবাহিনীর চিফ জেনারেল বিপিন রাওয়ত৷ ছিলেন সিনিয়র মন্ত্রীরা ও মিলিটারি অফিসাররা৷ রাষ্ট্রপতি সরাসরি লাদাখ স্কাউটস রেজিমেন্টাল সেন্টারে যান৷ সেখানে তাঁকে সম্মান জানানো হয়৷ ভারতীয় সেনার তিন বাহিনীর প্রধান রাষ্ট্রপতি৷ ডোকালাম নিয়ে চিন ও ভারতের এই উত্তপ্ত পরিস্থিতির মধ্যে রাষ্ট্রপতির লেহ সফর যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে৷

----
--