নয়াদিল্লি: সেনাবাহিনীর জন্য অ্যাসল্ট রাইফেল, কার্বাইন আনতে বিদেশে প্রতিনিধি দল পাঠাল ভারত। এক আর্মি ব্রিগেডিয়ারের নেতৃত্বে ন’জনের ওই দল পাঠানো হয়েছে আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া ও আরব আমিরশাহীতে।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফ থেকে আগেই জানানো হয়েছিল যে চিন ও পাকিস্তান সীমান্তে থাকা সেনাবাহিনীর জন্য ৭২০০০ অ্যাসল্ট রাইফেল ও ৯৩,৮৯৫টি CQB কার্বাইন দেওয়া হবে। ফাস্ট ট্র্যাক প্রসিডিওরে ওই অস্ত্র আনা হবে বলেও জানানো হয়েছিল।

শনিবারই রওনা হয়েছে ওই দল। বিভিন্ন দেশ থেকে অস্ত্র আনতে পাঠানো হচ্ছে ওই দলকে। ওই অস্ত্রগুলি কতটা কাজে লাগবে, তা খতিয়ে দেখবে সেনার ওই প্রতিনিধি দলটি। রাইফেল ও কার্বাইন কিনতে খরচ হবে যথাক্রমে ১৭৯৮ কোটি ও ১৭৪৯ কোটি। এছাড়াও ১৮১৯ কোটি খরচে ১৬,৪৭৯ লাইট মেশিন গান কেনার বিষয়েও অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্র। তবে এই প্রসেস কিছুটা পিছিয়ে পড়েছে ফলে এখনই ভারতে আসছে না।

২০১৭-১৮ সাধারণ বাজেটে দেশের মিলিটারির জন্য অতিরিক্ত অর্থ বরাদ্দ না করা হলেও সামরিক সরঞ্জাম কিনতে ফাস্ট ট্র্যাক কাউন্সিল গঠন করে কেন্দ্র। ক্যাগের একটি রিপোর্ট মোতাবেক, এই মুহূর্তে সেনাবাহিনীর কাছে একটানা ৬০ দিন যুদ্ধ চালানোর মতো পর্যাপ্ত গোলাবারুদ ও সরঞ্জাম নেই। যা রয়েছে, তাতে বড়জোর ৪০ দিন পর্যন্ত তীব্র যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়া যাবে। কিন্তু যে কোনওদিন চিন বা পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্কের চরম অবনতি হতে পারে ও বেজিং বা ইসলামাবাদের বিরুদ্ধে চরম পথ বেছে নিতে বাধ্য হতে পারে নয়াদিল্লি। তাই আগাম সতর্কতা নিয়েই এগোতে চেয়ে কেন্দ্র এই কাউন্সিল গঠন করেছিল।

----
--