বিশ্বের ক্ষুদ্রতম কর্মক্ষম ন্যানো মিসাইল বানিয়ে রেকর্ড ভারতীয় ছাত্রের

চেন্নাই: ন্যানো মিসাইল তৈরি করে বিশ্ব রেকর্ড করলেন ভারতীয় ছাত্র। দাচারলা পাণ্ডুরঙ্গা রোহিত নামে চেন্নাইয়ের এসআরএম ইউনিভার্সিটির ওই ছাত্র এই মিসাইল ডিআরডিও-র হাতে তুলে দিতে চায়। রোবোট থেকে যাতে এই মিসাইল ছোঁড়া হয়, সেই চেষ্টা করছেন রোহিত। এতে স্থানীয় পুলিশের পক্ষে সন্ত্রাসদমন সহজ হবে বলেই মনে করছেন তিনি।

দাচারলা তিরুমালা রাও ও শ্রীদেবীর সন্তান রোহিত। চেন্নাইয়ের ওঙ্গোলে বসবাস করে তাঁর পরিবার। শ্রীবিশ্বশান্তি ইন্সটিটিউট থেকে পড়াশোনা শেষ করে বর্তমানে এসআরএম ইউনিভার্সিটিতে পড়াশোনা করেন রোহিত। ছেলেবেলাতেই বিজ্ঞানে তাঁর বিশেষ উৎসাহ। বিশেষ করে বিমান ও মিসাইল সংক্রান্ত প্রযুক্তি নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানোর চেষ্টা করেন। গত কয়েক বছর আগে বিজয়ওয়াড়ায় ভারতীয় বায়ুসেনার এয়ার শো-তে ফ্লাইং ক্যাডেট হিসেবে অংশগ্রহণ করার সুযোগ পান তিনি। তবে পরিবারের আর্থিক অবস্থা ভালো না হওয়ায় অ্যস্ট্রোনটিক্স পড়া হয়নি। কম্পিউটার সায়েন্স নিয়েই পড়াশোনা করেন তিনি।

রোহিত বলেন, চারিদিকে যখন সন্ত্রাসবাদীদের দৌরাত্ম্য বেড়ে চলেছে তখন তিনি এমন একটি অস্ত্র তৈরি করতে চেয়েছিলেন যা ছোট হবে ও সহজেই ব্যবহার করতে পারবে সেনা কিংবা পুলিশ। আর এই ন্যানো মিসাইল যাতে রোবট চালাতে পারে সেই ব্যবস্থা করছেন তিনি। কারণ, মুম্বই হামলার মত ঘটনায় তিনি দেখেছেন সাধারণ মানুষের প্রাণের ঝুঁকি থাকায় হোটেলের ভিতরে প্রবেশ করতে অসুবিধা হয়েছিল জওয়ানদের। রোবট এই মিসাইল চালাতে পারলে, মোকাবিলা করা সহজ হবে। এই চিন্তাভাবনা নিয়েই রোহিত ১ সেন্টিমিটারের একটি মিসাইল তৈরি করেছেন। তিন মিটার দূরে থাকা টার্গেটে সহজেই আঘাত করতে পারবে এটি। তিনি চেষ্টা করছেন যাতে এটির ওজন আরও কমানো যায়, তাতে আরও দূরে যেতে পারবে এই মিসাইল।

- Advertisement -

চেন্নাইয়ের রামাপুরমের এসিপির উপস্থিতিতে এই মিসাইল টেস্ট করা হয়েছে। সেই ভিডিও সাবমিট করার পর এই মিসাইলকে বিশ্বের সবথেকে ছোট কর্মক্ষম মিসাইলের তকমা দিয়েছে The Bureau of the World Records of India. রোহিত বলেন, ‘একটা নিখুঁত ন্যানো মিসাইল তৈরি করতে অনেক পরিশ্রম লাগে।’

Advertisement ---
---
-----