চিনকে ‘ওপেন চ্যালেঞ্জ’ দিয়ে পরমাণু অস্ত্র নিক্ষেপের বৃ্ত্ত সম্পূর্ণ করল ‘অরিহন্ত’

নয়াদিল্লি: স্থলপথে বা আকাশপথে পরমাণু অস্ত্র নিক্ষেপের ব্যবস্থা আগেই ছিল ভারতের। এবার সমুদ্রের গভীরেও শত্রুকে পরমাণু অস্ত্রে ঘায়েল করার সব বন্দোবস্ত করে ফেলল ভারত। আইএনএস অরিহন্তের হাত ধরে সম্পূর্ণ হল সেই বৃত্ত। সোমবার থেকে সম্পূর্ণভাবে সক্রিয় হল ভারতীয় নৌসেনার এই নতুন সদস্য।

এদিন আইএনএস অরিহন্ত বিশেষ টহলদারি শেষ করে গন্তব্যে ফিরেছে। সেই সাফল্য উপলক্ষে এদিন অরিহন্তকে স্বাগত জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। অরিহন্তের সদস্যদের উদ্দেশে মোদী বলেন, ”দেশের সুরক্ষায় একটা বড়সড় ভূমিকা নেবে আইএনএস অরিহন্ত। দেশের শত্রুদের জন্য এটা একটা ওপেন চ্যালেঞ্জ।”

এদিন মোদী অরিহন্তের সদস্যদের সাধুবাদ দেন। এই সাবমেরিন ১৩০ কোটি ভারতবাসীকে সুরক্ষা দেবে বলে উল্লেখ করেছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ”আজ ভারতের জন্য একটি ঐতিহাসিক দিন। পরমাণু অস্ত্রের বৃত্ত সম্পূর্ণ হল আজ। বিশ্বের শান্তিরক্ষায় ভারত এবার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে।”

এর আগে এই বৃত্তের অংশ হিসেবে ছিল অগ্নি ব্যালিস্টিক মিসাইল ও ফাইটার বম্বার। তবে জলের তলায় পরমাণু অস্ত্র চালনার জন্য সাবমেরিনের অভাব ছিল। এই সাবমেরিন সেই বৃত্ত সম্পূর্ণ করল। আর এটাই সবথেকে বেশি গোপন হাতিয়ার হিসেবে গণ্য হবে। কারণ একে চিহ্নিত করা শত্রুপক্ষের জন্য বেশ কঠিন। আর ভারত মহাসাগরে যেভাবে চিনের আনাগোনা বাড়ছে, তাতে ভারতকে এই সাবমেরিক ব্যবহার করতেই হবে।