নৌসেনার শক্তি বাড়িয়ে কাজ শুরু করল আইএনএস কালভেরি

মুম্বই: ভারতীয় নৌসেনার শক্তি বাড়িয়ে সমুদ্র ডুব দিল আইএনএস কালভেরি৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর হাতে ধরে পথ চলা শুরু করল দেশিয় প্রযুক্তিতে নির্মিত এই সাবমেরিন৷ গত কয়েকদিন ধরে বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর আজ ভারতীয় নৌসেনায় আনুষ্ঠানিক কাজ শুরু করল স্করপিন শ্রেণির এই সাবমেরিন৷

মুম্বইয়ের নৌসেনার ডকে এই সাবমেরিনের উদ্বোধন করেন নরেন্দ্র মোদী৷ মোদী ছাড়াও উদ্বোধনী মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমন, নৌসেনা প্রধান সুনীল লম্বা, ভাইস অ্যাডমিরাল গিরিশ লুথরা ও ফ্ল্যাগ অফিসাররা৷ এদিন সকালে উদ্বোধনের পাশাপাশি আইএনএস কালভেরি’র ডাক নামাও ঠিক করে দেন প্রধানমন্ত্রী৷ বলেন, ‘‘আজ থেকে এর নাম দেওয়া হোক ‘সাগর’৷ কারণ, এই ‘সাগর’ আমাদের রক্ষা করবে৷ এই সাবমেরিন দেশের গর্ব৷ ভারত মহাসাগর থেকে আরব সাগর, প্রতিটি এলাকাতেই দেশের দিকে এগিয়ে আসা যেকোনও বিপদ মোকাবিলায় আমরা তত্পর। আইএনএস কালভরি এই কাজে সর্বদা তৈরি৷’’

কি এই INS Kalavari? এটি একটি ডিজেল ইলেকট্রিক অ্যাটাক সাবমেরিন৷ স্করপিন শ্রেণির৷ এই প্রথম ম্যাজাগন ডকস লিমিটেড-এর প্রোজেক্ট ৭৫-এর অধীনে ভারতেই, ফ্রান্সের DCNS প্রযুক্তিতে তৈরি করা হল এই অত্যাধুনিক সাবমেরিন৷ এটি একটি স্টিলথ সাবমেরিন এবং এটি এমনই প্রযুক্তিতে তৈরি যে শত্রুপক্ষও এই সাবমেরিনকে চিহ্নিত করতে পারবে না৷

- Advertisement -

এর ওজন ১,৫৫০ টন এবং অ্যান্টি শিপ টর্পেডো, অ্যান্টিশিপ মিসাইল লঞ্চ করার জন্য রয়েছে ছ’টি ৫৩৩ মিলিমিটার টর্পেডো টিউব৷ চিন-পাকিস্তান দুই দেশের গতিবিধির ওপর কড়া নজর রাখতে এর ভূমিকা যে অনস্বীকার্য হয়ে উঠবে এমনটাই মনে করা হচ্ছে৷ ভারত মহাসাগরের ভয়ঙ্কর টাইগার শার্কের নাম অনুযায়ী এই সাবমেরিনের নামকরণ করা হয়েছে৷

Advertisement ---
---
-----