‘পোশাক আমার কাছে একটা ক্যানভাস’: শর্বরী দত্ত

কলকাতা: তাঁর বাবা ছিলেন একজন কবি৷ যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের হেড অব দ্য ডিপার্টমেন্টও৷ ছোট থেকেই সাংস্কৃতিক পরিমন্ডলে বেড়ে ওঠা৷ দর্শন শাস্ত্র নিয়ে পড়াশোনা শেষ করে আসেন ফ্যাশন জগতে৷ তবে সব কিছু পেরিয়ে ২৫ বছরের অভিজ্ঞতা নিয়ে আজ তিনি একজন সফল ফ্যাশন ডিজাইনার৷ তিনি শর্বরী দত্ত৷ আন্তর্জাতিক স্তরেও কাজ করেন তিনি৷ ট্র্যাডিশনাল ইন্ডিয়ান ওয়্যার ফর ম্যান কে ফ্যাশনের মর্যাদা দিয়েছেন তিনিই৷ এক্ষেত্রে আজও তিনি এক এবং অদ্বিতীয়৷ সঞ্জয় লীলা বনসালি থেকে শুরু করে গোটা বচ্চন পরিবারের ড্রেস ডিজাইন করেছিলেন তিনিই৷ কলকাতা ২৪x৭ কে জানালেন তার ২৫ বছরের অভিজ্ঞতার কথা৷ শুনলেন প্রিয়াঙ্কা দত্ত

প্রশ্ন: এই পথ চলার শুরুটা ঠিক কিভাবে?
শর্বরী: ১৯৯১ সালে প্রথম একটা এক্সিবিজ়ন করেছিলাম, তবে একেবারেই খেলার ছলে৷ এতটাই ইনফর্মাল ছিল যে আমি কাউকে দিয়ে ইনঅগারেটও করাইনি৷ আর সত্যি কথা বলতে আমি কাউকে পেতামও না৷ আমার কাজের প্রচার করার জন্য কেউ এগিয়ে আসেনি৷ যে ক্রাউডটা সেদিন এসেছিল সবাই চেনাশোনা বন্ধু মহলের, তবে পুরো বিষয়টিতে খুব রিস্কও ছিল কারণ সেই সময়ে দাঁড়িয়ে ছেলেদের পোষাক নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করার কথা কেউ ভাবতেই পারত না৷

2

- Advertisement -

প্রশ্ন:ডিজ়াইন থেকে কাটিং এত কাজ একা হাতে কিভাবে সামলেছেন?
শর্বরী: আমার কোনও ক্রিয়েটিভ অ্যাসিসটেন্ট নেই৷ ‘আই ট্রিট মাই ফ্যাবরিক অ্যাজ মাই ক্যানভাস’, ফ্যাবরিকের ওপর ফ্রি হ্যান্ড আঁকি৷ যেমন কালীঘাটের পট, যামিনী রায়, মধুবনী এমনই আঁকা থাকে আমার ডিজাইনে৷ তারপর তা এম্ব্রয়ডারি করা হয়৷ এই কাজের জন্য আমার টিম রয়েছে৷টেলর, কারিগর, জারদৌসি, আরির এসব কিছু করার জন্যই হেল্পার রয়েছে৷

প্রশ্ন:রঙীন ধুতির প্রচলন আপনার হাতেই৷ এখন বিষয়টি প্রচলিত হলেও তখন তো বিষয়টা একেবারেই অন্য রকম ছিল৷ সেই অভিজ্ঞতার কথা যদি শেয়ার করেন?
শর্বরী:আমার ফার্স্ট একজিবিশনেই এই ভাবনাটা রেখেছিলাম, সেদিন একটাই ধুতি বিক্রি হয়েছিল৷ পুলুর (সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়) বৌ কিনেছিল ওঁর জন্য৷ তবে এখন যে কোনও দোকানেই পাবে এই রঙীন ধুতি৷ যেটা মার্কেটে এসেছে মা’র হাত ধরেই৷ এখন আমি রঙীন ধুতিকে রেডি টু ওয়্যার করেই বানাই৷ পাজামার মত করে৷ তবে দেখে কেউ বুঝবে না৷ ধুতি বিষয়টা আরও সহজ করার জন্যই এই ভাবনাচিন্তা৷

1

প্রশ্ন:আপনার ডিজাইনে কি কি ধরনের পোশাক রাখেন?
শর্বরী:সাধারণত ধুতি, পিরান শেরওয়ানি, পাঞ্জাবী, জহরকোট এই ধরণের ট্র্যাডিশনাল ইন্ডিয়ান ওয়্যার ফর ম্যান৷

প্রশ্ন:মেনস অর্নামেন্টসের কি কালেকশন রয়েছে?
শর্বরী:আমি সেভাবে অর্নামেন্টস তৈরি করি না৷ তবে একবারই অর্নামেন্টস ওয়ার্ল্ড গোল্ড কাউন্সিল এর অ্যাসাইন করা একটা শো করেছিলাম৷ যার শো স্টপার ছিলেন জন আব্রাহাম৷ ওটাই একবার৷

সবমিলিয়ে এখন তিনি সাফল্যে তালিকা প্রথম সারির একটা নাম৷ পুরুষের পোশাক যে শুধু তাঁর হাত ধরেই এক অন্য মাত্রা পেয়েছে তা বলাই বাহুল্য৷

Advertisement ---
---
-----