কলকাতা২৪x৭: মুম্বই ইন্ডিয়ান্স তিনবারের চ্যাম্পিয়ন হলেও সামগ্রিক পারফরম্যান্সের নিরিখে আইপিএলের সব থেকে ধারাবাহিক দল হল চেন্নাই সুপার কিংস৷ আটবার আইপিএল খেলতে নেমে প্রত্যেকবারই প্লে-অফে জায়গা করে নিয়েছে সিএসকে৷ ধারাবাহিকতা বজায় রাখার লক্ষ্যে অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের নিয়ে নির্ভরযোগ্য দল গড়েছে চেন্নাই৷ পুরনো জার্সিতে ফিরে মহেন্দ্র সিং ধোনি, সুরেশ রায়না, ডোয়েন ব্র্যাভোরা নিশ্চিতভাবেই নিজেদের পরিচিত ছন্দে মেলে ধরতে চাইবেন৷ দু’বছরের নির্বাসন কাটিয়ে আইপিএলের সংসারে ফেরা চেন্নাই সুপার কিংস অতীত রেকর্ডের জন্যই এবার টুর্নামেন্টের অন্যতম ফেভারিট হিসাবে মাঠে নামবে৷

Advertisement

স্কোয়াড:-
ব্যাটসম্যান: সুরেশ রায়না, ফ্যাফ ডু’প্লেসি, মুরলি বিজয়, কেদার যাদব, ধ্রুব শোরে৷

উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান: মহেন্দ্র সিং ধোনি (অধিনায়ক), আম্বাতি রায়াড়ু, স্যাম বিলিংস, নারায়ন জগদীসান৷

অলরাউন্ডার: রবীন্দ্র জাদেজা, ডোয়েন ব্র্যাভো, শেন ওয়াটসন, মিচেল স্যান্টনার, চৈতন্য বিষ্ণই৷

বোলার: হরভজন সিং, ইমরান তাহির, করণ শর্মা, শার্দুল ঠাকুর, মার্ক উড, লুঙ্গি এনগিদি, দীপক চাহার, কণিষ্ক শেঠ, কেএম আসিফ, মনুকুমার সিং, ক্ষিতিজ শর্মা৷

সাপোর্ট স্টাফ:-
স্টিফেন ফ্লেমিং (হেড কোচ)
মাইক হাসি (ব্যাটিং কোচ)
লক্ষ্মীপতি বালাজি (বোলিং কোচ)
এরিক সিমন্স (বোলিং পরামর্শদাতা)
টি সিমসেক (ফিজিও)
জি কিং (ট্রেনার)
আর রাসেল (টিম ম্যানেজার)
এল নারায়নন (পারফরম্যান্স অ্যানালিস্ট)
ডঃ মধু (টিম ডাক্তার)
সঞ্জয় (লজিস্টিক্স ম্যানেজার)

দলের খবর:- নির্বাসন থেকে ফিরে চেন্নাই সুপার কিংসের প্রথম এবং প্রধান লক্ষ্য ছিল পুরনো যোদ্ধাদের একত্রিত করা৷ ফিরে আসের আগে থেকেই চেন্নাই ফ্র্যাঞ্চাইজি ধোনিকে ক্যাপ্টেন হিসাবে দলে ফেরানো হবে বলে জানিয়ে আসছিল৷ সেই মতো তারা রিটেন করে মাহিকে৷ সঙ্গে দুই ভারতীয় তারকা সুরেশ রায়না ও রবীন্দ্র জাদেজাকেও ধরে রাখে দলে৷ রাইট টু ম্যাচ কার্ডে সিএসকে দলে নেয় ফ্যাফ ডু’প্লেসি ও ডোয়েন ব্র্যাভোকে৷ নিলামের আসর থেকে দলে তুলে নেয় হরভজন সিং, কেদার যাদব, আম্বাতি রায়াড়ুর মতো ভারতীয় তারকাদের৷

ট্রাম্প কার্ড:- দলে তারকার ছড়াছড়ি৷ ধোনি, রায়না, জাদেজার মতো মহাতারকারাও রয়েছেন৷ তবে সবার মাঝে আলাদা করে নজর কাড়তে পারেন তরুণ প্রোটিয়া পেসার লুঙ্গি এনগিদি৷ চমক দিতে পারেন ধ্রুব শোরে, দীপক চাহাররাও৷

অতীত রেকর্ড:- মোট আটবার আইপিএলে অংশ নিয়েছে সিএসকে৷ ফাইনালে উঠেছে ছ’বার৷ ২০১০ ও ২০১১ সালে পর পর দু’বার চ্যাম্পিয়ন হলেও বাকি চারবার রানার্স হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে চেন্নাইকে৷ প্রথমবার ডিওয়াই পাতিল স্টেডিয়ামের ফাইনালে ধোনিরা পরাস্ত করে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে৷ পরের বছর চিপকে তারা হারিয়ে দেয় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরকে৷

২০০৮ সালের উদ্বোধনী মরশুমের ফাইনালে চেন্নাই পরাজিত হয় রাজস্থান রয়্যালসের কাছে৷ ২০১২ ও ২০১৩ ফাইনালে সিএসকে হারে যথাক্রমে কলকাতা নাইট রাইডার্স ও মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কাছে৷ ২০১৫ ফাইনালে চেন্নাইকে দ্বিতীয়বার বিধ্বস্ত করে মুম্বই৷ এছাড়া বাকি দু’টি মরশুমেও চেন্নাই প্লে-অফে জায়গা করে নিয়েছিল৷

সিএসকের সূচি:-
৭ এপ্রিল: মুম্বই ইন্ডিয়ান্স (ওয়াংখেড়ে, রাত ৮টা)
১০ এপ্রিল: নাইট রাইডার্স (চিপক, রাত ৮টা)
১৫ এপ্রিল: কিংস ইলেভেন পঞ্জাব (মোহালি, রাত ৮টা)
২০ এপ্রিল: রাজস্থান রয়্যালস (চিপক, রাত ৮টা)
২২ এপ্রিল: সানরাইজার্স হায়দরাবাদ (উপ্পল, বিকেল ৪টা)
২৫ এপ্রিল: রয়াল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর (চিন্নাস্বামী, রাত ৮টা)
২৮ এপ্রিল: মুম্বই ইন্ডিয়ান্স (চিপক, রাত ৮টা)
৩০ এপ্রিল: দিল্লি ডেয়ারডেভিলস (চিপক, রাত ৮টা)
৩ মে: নাইট রাইডার্স (ইডেন, রাত ৮টা)
৫ মে: রয়াল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর (চিপক, বিকেল ৪টা)
১১ মে: রাজস্থান রয়্যালস (জয়পুর, রাত ৮টা)
১৩ মে: সানরাইজার্স হায়দরাবাদ (চিপক, বিকেল ৪টা)
১৮ মে: দিল্লি ডেয়ারডেভিলস (কোটলা, রাত ৮টা)
২০ মে: কিংস ইলেভেন পঞ্জাব (চিপক, রাত ৮টা)

----
--