বন্যা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখলেন সেচ মন্ত্রী

ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: বন্যা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে বুধবার বাঁকুড়ায় এলেন রাজ্যের সেচ দফতরের মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র। তিনি এদিন বাঁকুড়ায় পৌঁছেই জেলা প্রশাসনের আধিকারিক ও সংশ্লিষ্ট এলাকার জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

সার্কিট হাউসে এই বন্যা পরবর্তী পর্যালোচনা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন জেলাশাসক ডা. উমাশঙ্কর এস, পুলিশ সুপার সুখেন্দু হীরা, মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরা, জেলা সভাধিপতি অরূপ চক্রবর্তী, বিধায়ক অরুপ খাঁ, বাঁকুড়া পুরসভার পুরপ্রধান মহাপ্রসাদ সেনগুপ্ত সহ রাজ্য সেচ ও জেলা প্রশাসনের আধিকারীকরা। পরে জেলাশাসককে সঙ্গে নিয়ে মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র বাঁকুড়া শহরের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সতীঘাট ও জুনবেদিয়া এলাকা পরিদর্শনে যান।

ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শণ শেষে মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র সাংবাদিকদের সামনে প্রশ্ন তুলে বলেন, ‘‘জুনবেদিয়া যে বাড়িটি জলের তোড়ে ভেঙেছে তা গত ২০০৫ সালে ওই এলাকার পূর্বতন বাম পঞ্চায়েত কি করে বাড়ি তৈরির অনুমোদন দিল।’’ একই সঙ্গে তিনি জানান, ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা সহ বিস্তারিত রিপোর্ট তিনি মুখ্যমন্ত্রীকে দেবেন। ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে সব সময় মুখ্যমন্ত্রী আছে। একই সঙ্গে সতীঘাটে নতুন সেতু তৈরিতে প্রয়োজনীয় টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

- Advertisement -

এছাড়াও দ্বারকেশ্বর ও গন্ধেশ্বরী নদী সংস্কারে সরকার উদ্যোগ নেবে বলেও তিনি জানান। গন্ধেশ্বরী নদীর গতিপথ আটকে একটি ফ্ল্যাট তৈরি হয়েছে বলে দীর্ঘদিনের অভিযোগ৷ সেই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘বিষয়টি তাঁর দফতর খতিয়ে দেখবে।’’ সবশেষে মন্ত্রী এদিন কেশিয়াকোল ত্রাণ শিবিরে যান। সেখানে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্তদের সঙ্গে কথা বলেন।

Advertisement ---
-----