সমকামিতা কি অপরাধ? কী বলছে কেন্দ্র

নয়াদিল্লি: সমকামিতা কি অপরাধ? এই প্রশ্নে আপাতত জোরদার আলোচনা দেশের সর্বত্র৷ সমকামী যৌনতার ওপর দেড়শো বছরের নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারে কেন্দ্র আজ নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করল৷ তারা জানিয়ে দিল এই ইস্যুতে সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে গণ্য করা হবে৷

সরকার পক্ষের আইনজীবী বুধবার আদালতে জানিয়ে দেন কেন্দ্র সরকার এই সিদ্ধান্ত গ্রহণের ভার সম্পূর্ণ তুলে দিচ্ছে সুপ্রিম কোর্টের হাতে। প্রসঙ্গত, ভারতে দেড়শো বছর ধরে সমকামিতা নিষিদ্ধ। ৩৭৭ ধারা অনুযায়ী, সমকামিতা ‘প্রকৃতি বিরুদ্ধ’।

এই আইনকেই চ্যালেঞ্জ করে আগে দিল্লি হাইকোর্টে মামলা দায়ের হয়। হাইকোর্ট সেই আবেদনকে মান্যতা দিলেও, ২০১৩ সালে সুপ্রিম কোর্ট সেই রায় খারিজ করে দেয়। শীর্ষ আদালতের সেই রায়ই পুনর্বিবেচনার দাবি নিয়ে ইতিমধ্যে জমা পড়েছে গুচ্ছ আবেদন।

- Advertisement -

সেইসব আবেদনের ভিত্তিতেই চলতি বছরের জানুয়ারিতে ফের বিচার শুরু করেছে সুপ্রিম কোর্ট। এই মামলায় কেন্দ্রকে হলফনামা দিয়ে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করতে বলেছিল আদালত। এদিন কেন্দ্র জানাল, এ বিষয়ে আদলেতের বিচক্ষণতা ও বিবেচনা বোধের উপর ভরসা করছে তারা।

৩৭৭ ধারাটি বাতিল করার পক্ষে যে আবেদনগুলো জমা পড়েছিল, সেই সংক্রান্ত মামলাটি এদিন শোনেন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিরা। শুনানির দ্বিতীয় দিনে সরকারি পক্ষের উকিল তুষার মেহতা বলেন, এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার ভার আদালতের ওপর ছেড়ে দিচ্ছে কেন্দ্র৷ তাঁর কথার উত্তরে প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র আবারও জানতে চান তাহলে আপনারা ৩৭৭ ধারাটিকে অপরাধের ধারা হিসাবে গণ্য করা হবে কি না সেই সিদ্ধান্তের ভার আদালতের বিচক্ষণতার ওপর ছেড়ে দিচ্ছেন?

২০১৩ সালে সমকামিতার বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিপক্ষে একের পর এক পিটিশন জমা পড়ছিল আদালতে। যার ফলে গত জানুয়ারিতে সুপ্রিম কোর্ট মামলাটির দিকে আবার নতুনভাবে নজর দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। সামাজিক ‘নৈতিকতা’র পরিবর্তনের কথা মাথায় রেখেই শীর্ষ আদালত এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে বলে জানা গিয়েছে।

Advertisement ---
-----