মন ভরে কফি খান! বাড়বে আয়ু

নয়াদিল্লি: হট কফি না কোন্ড কফি! প্রতিযোগিতায় কে এগিয়ে? কোনটি বেশি স্বাস্থ্যকর? উত্তর দেবে গবেষণার তথ্য৷ স্টাডি জানাচ্ছে, হজমে খানিকটা সাহায্য করে কোল্ড কফি৷ অন্যদিকে, তুলনামূলক ভাবে বেশি কাজের হট কফি৷ কারণ, কোল্ড কফির থেকে অনেক বেশি অ্যান্টিঅক্সিডেট থাকে হট কফিতে৷ বিভিন্ন সময়ে গবেষণার টপিক হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে বিষয়টিকে৷ আর, সেই গবেষণা থেকেই উঠে আসছে নানা তথ্য৷

গবেষণার তথ্য অনুসারে, নিয়মিত কফি খাওয়ার অভ্যেস হার্টের রোগ, ডায়াবেটিস, অকাল মৃত্যু মত ঝুঁকিকে কম করতে সাহায্য করে৷ গবেষকরা প্রমান করেছেন কফি মধ্যস্থ ক্যাফাইন ফ্যাট বার্ণ করতে সাহায্য করে৷ শুধু তাই নয়, মেটাবলিক রেটকেও বাড়ায় উপাদানটি৷ সম্প্রতি, আরও বেশ কিছু তথ্য সামনে আনেন গবেষকরা৷ যেখানে দেখা গিয়েছে, কয়েক প্রকার ক্যান্সার এবং ডিপ্রেশনের মত রোগকেও দূরে রাখতে পারে এক কাপ কফি৷

এক গবেষক জানাচ্ছেন, ‘কফির মধ্যে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে৷ যেটি আপনার স্বাস্থ্যের পক্ষে ভাল বলে প্রমানিত হতে পারে৷ কোল্ড কফির তুলনায় অনেক বেশি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে হট কফতে৷’ এই ধরণের গবেষণা একাধিকবার সংবাদ মাধ্যম মারফত সামনে এসেছে৷ জার্নালে প্রকাশিত এমনই এক গবেষণার তথ্য জানাচ্ছে, যারা প্রতিদিন ২-৩ কাপ কফি খেয়েছেন তাদের মৃত্যুর সম্ভবনা কমেছে ১২ শতাংশ পর্যন্ত৷

তাই, কোন দিকে কান না দিয়ে চুটিয়ে কফি খান৷ আর, ঘরে বসেই কমিয়ে ফেলুন ওজন৷ অনেকেই ওজনবৃদ্ধি জনিত সমস্যায় ভোগেন৷ আর, সেখান থেকেই ছোট বড় রোগ বাসা বেধে বসে শরীরে৷ যেটি অনেক সময় মারণ ব্যাধির পর্যায়েও চলে যায়৷ কিন্তু, মাত্র এক কাপ কফিতেই মিলতে পারে সমাধান৷ তাই, শীতের সকাল শুরু করুন কফির কাপে চুমুক দিয়ে৷

----
-----