নির্বাচনের আগে জেল থেকে ছাড়া পাচ্ছেন না নওয়াজ-মরিয়ম

ইসলামাবাদ: নওয়াজ শরিফ, তাঁর কন্যা মারিয়মের জন্য দু:সংবাদ৷ পাকিস্তানের আসন্ন নির্বাচন পর্যন্ত জেলেই থাকতে হবে এই দুজনকে৷ জামিনের আবেদনের শুনানি স্থগিত করার ফলেই এই পরিস্থিতিতে পড়তে হয়েছে শরিফকে৷

ইসলামাবাদ হাইকোর্ট মঙ্গলবার পরিস্কার জানিয়ে দেয় জুলাই মাসে শরিফদের আবেদন শোনা হবে না৷ এর ফলে নওয়াজ শরিফ, তাঁর কন্যা মারিয়ম নওয়াজ ও জামাই মহম্মদ সফদরকে জেলেই থাকতে হব৷

এরআগে, সোমবার প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ অ্যাভেনফিল্ড দুর্নীতি মামলার রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করেন। ইসলামাবাদ হাইকোর্টে ওই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন তিনি। একই সঙ্গে তাঁর মেয়ে মারিয়ম নওয়াজ এবং মারিয়মের স্বামী সফদরও রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন।
কিন্তু হাইকোর্টের এই রায়ের ফলে জুলাইয়ের শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে শরিফদের৷ ৬ জুলাই অ্যাভেনফিল্ড দুর্নীতি মামলায় নওয়াজকে ১০ বছরের সাজা দেওয়া হয়৷ একই মামলায় মারিয়মকে সাত বছর ও সফদরকে এক বছর কারবাসের সাজা শোনানো হয়৷

- Advertisement -

পাশাপাশি নওয়াজকে ৮০ লাখ পাউন্ড ও মরিয়মকে ২০ লাখ পাউন্ড জরিমানা করা হয়েছে।

রাওয়ালপিন্ডির আদিয়ালা জেলে বন্দী প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রী৷ শনি ও রবিবার পাকিস্তানে আদালতের কাজ বন্ধ থাকায় সোমবার আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে আপিল করেন নওয়াজ শরিফের আইনজীবী। মঙ্গলবার এই রায় দিল আদালত৷ ফলে সময়টা যে খুব একটা ভালো যাচ্ছে না শরিফ ও তাঁর পরিবারের, তা বলাই বাহুল্য৷ এদিকে, শরিফ ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে আরও দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে৷ আপিলের শুনানি না হলেও, জুলাইয়েই পাকিস্তানের দুর্নীতি দমন শাখার দায়ের করা মামলায় ট্রায়ালের মুখে পড়তে পারেন নওয়াজের পরিবার।

তবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে না পারলেও কমতি নেই প্রচারে৷ পাকিস্তান মুসলিম লিগ নওয়াজ বা পিএমএলএন-এর তরফ থেকে জোরদার প্রচার চলছে দেশ জুড়ে৷

Advertisement
---