ইসলামফোবিয়া থেকে নিউজিল্যান্ডে জঙ্গি হামলা, মত ইমরান খানের

ইসলামাবাদ: নিউজিল্যান্ডের ভয়াবহ জঙ্গি হামলা স্তম্ভিত করেছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে৷ তিনি মনে করেন ইসলামফোবিয়ার কারণে মসজিদে ঢুকে  নির্বিচারে গণহত্যা করা হয়েছে৷ ট্যুইটে হামলার নিন্দা করেন ইমরান৷ লেখেন, খবর শুনে স্তম্ভিত৷ নিউজিল্যান্ডের ক্রিস্টচার্চ মসজিদে জঙ্গি হামলার নিন্দা করছি৷ পাক প্রধানমন্ত্রী জানান, সন্ত্রাসের কোনও ধর্ম হয় না৷ নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা৷

হামলার কারণ ব্যাখ্যা করে ট্যুইটে ইমরান লেখেন, ৯/১১ পর থেকে গোটা বিশ্ব জুড়ে ইসলাম ধর্মের প্রতি ভয় ভীতির সঞ্চার হয়েছে৷ তারপর থেকে কোনও জঙ্গি হামলা হলে ইসলাম ও ১.৩ বিলিয়ন মুসলিমের ঘাড়ে দোষ চাপানো হয়৷

শুক্রবার নিউজিল্যান্ডের দুটি মসজিদে জঙ্গি হামলা৷ সেই সময় প্রার্থনার জন্য অনেক মুসলিম জড়ো হয়৷ এলোপাথারি গুলিতে ৪৯ জন প্রাণ হারান৷ আহত আরও ২০৷ আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম এপি, রয়টার্স আল জাজিরার খবর নিহতদের তালিকায় রয়েছেন দুই বাংলাদেশি৷

- Advertisement -

বিবিসি জানায়, নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটো মসজিদে এলোপাথাড়ি গুলি চালানোর ঘটনায় কোনরকমে বেঁচে গিয়েছেন সেখানে থাকা বাংলাদেশি ক্রিকেট দলের সদস্যরা৷ হামলার ঘটনায় দু’জন বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে৷ এই খবর নিশ্চিত করেছে সেদেশের দূতাবাস৷ অন্তত পাঁচজন বাংলাদেশি জখম হয়েছেন৷ এদের মধ্যে দু জনের অবস্থা গুরুতর৷

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী আরডার্ন একে জঙ্গি হামলা হিসেবে বর্ণনা করেছেন৷ তিনি জানান, এই হামলা দেশটির ইতিহাসের “কালো দিন”। পুলিশ কমিশনার মাইক বুশ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, সন্দেহভাজন তিনজন পুরুষ এবং একজন মহিলাকে আটক করা হয়েছে। হামলার পরেই প্রতিবেশী রাষ্ট্র অস্ট্রেলিয়ায় জারি সতর্কতা৷ আগে বেশ কয়েকবার এই দেশেও জঙ্গি হামলা হয়েছে৷ অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন জানিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের পুলিশ যাদের আটক করেছে তাদের একজন অসি নাগরিক৷