নয়াদিল্লি: স্বাধীনতা দিবসের দিনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণার মধ্যে একটি হল, ২০২২-এ মহাকাশে মানুষ পাঠাবে ভারত। আর সেই ঘোষণার কথা নিশ্চিত করলেন ইসরোর চেয়ারম্যান কে শিবান। তিনি জানালেন, ইতিমধ্যেই এবিষয়ে কাজ করছে ইসরোর বিজ্ঞানীরা।

বুধবার স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে লালকেল্লা থেকে প্রধানমন্ত্রী মোদী জানান, ২০২২ সালে কোনও ভারতীয় পুরুষ বা মহিলা ‘গগনযান’-এ মহাকাশে পাড়ি দেবেন। ভারতের জাতীয় পতাকা মহাকাশে উড়বে বলে উল্লেখ করেন তিনি। সেই প্রসঙ্গে কে শিবান বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আমাদের সামনে ২০২২-এর টার্গেট সেট করে দিয়েছেন, আমাদের কর্তব্য তা পূরণ করা। আমরা ইতিমধ্য়েই এই কাজে অনেকটা এগিয়ে গিয়েছি। তবে কাজ এখনও অনেক বাকি। তিনি জানিয়েছেন, প্রযুক্তিগত অনেক কাজ বাকি আছে। এখন আমাদের লক্ষ্যমাত্রাকে অগ্রাধিকার দিয়ে সেখানে পৌঁছতে হবে।’

Advertisement

রাশিয়া, আমেরিকা ও চিনের পর ভারত চতুর্থ দেশ হিসেবে মহাকাশে মানুষ পাঠাতে চাইছে। তবে, মহাকাশে মানুষ পাঠানোর ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হল মহাকাশচারীদের পৃথিবীতে ফিরিয়ে আনা। পৃথিবীর বায়ুমন্ডলে প্রবেশ করলেই মহাকাশযানগুলি বায়ুর সঙ্গে ঘর্ষণে প্রবল উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। এই তাপকে সহ্য করার মতো প্রযুক্তি তৈরিই মহাকাশে মানুষ পাঠানোর ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।

২০০৭ সালেই ভারত ‘রি-এন্ট্রি’ প্রযুক্তির প্রথম পরীক্ষাটি করেছিল। ৫৫০ কেজি ওজনের একটি উপগ্রহকে মহাকাশে পাঠিয়ে ১২ দিন পর আবার তাকে সফলভাবে পৃথিবীতে ফিরিয়ে আনা হয়েছিল। এই বাধা টপকানোর পরই দ্রুত এগিয়েছে মহাকাশে মানুষ পাঠানোর কাজ।

----
--