‘উন্নততর তৃণমূল নয়, উন্নততর বাংলা চাই’

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য বাংলার আম জনতাকে এক সময় বলেছিলেন বামফ্রন্টের বিকল্প উন্নততর বামফ্রন্ট৷ তবে সেই উন্নততর বাম সরকার পরবর্তীকালে আর দিনের আলো দেখেনি৷

২০১৮-র পঞ্চায়েত নির্বাচনের মাত্র দুই দিন আগে ‘উন্নততর তৃণমূল’ নয়, তবে ‘উন্নততর বাংলা’ গড়ার আহ্বান জানালেন তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷ শুক্রবার তিনি জানান, বিরোধীরা উন্নয়নের সঙ্গে লড়তে পারলে লড়ুন৷ তাঁরা অনেক আশা করেছিলেন, কোর্টে গেলে বোধ হয় ভোট বন্ধ হয়ে যাবে৷ কিন্তু, হল না৷

ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কলকাতা প্রেসক্লাব আয়োজিত মিট দ্য প্রেস-এ পার্থ চট্টোপাধ্যায় এ দিন বলেন, ‘‘উন্নততর বাংলা গড়ার অঙ্গীকার করেছে তৃণমূল কংগ্রেস৷ মানুষ তাই বছরের পর বছর তৃণমূলকেই বেছে নিয়েছে৷ উন্নততর তৃণমূল নয়, উন্নততর বাংলা চাই৷’’

- Advertisement -

প্রশ্নের উত্তরে তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব এমনই জানান, তৃণমূল কংগ্রেসে কোনও অন্তর্দ্বন্দ্ব নেই৷ নিচুতলায় কিছু মনোমালিন্য থাকতে পারে৷ অনেকদিন তিনি রাজনীতি করছেন৷ তাই গোঁজ প্রার্থী কাকে বলে তিনি ভালোই জানেন৷ এ রকম অনেক প্রার্থীকেই মনোনয়ন প্রত্যাহার করতে বাধ্য করা হয়েছে জানিয়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায় এ দিন বলেন, ‘‘অনেকেই ২০১৩-র পঞ্চায়েত নির্বাচনের কথা বলেছেন৷ কিন্তু ১৯৯৩-এর বিরোধী শূন্য ভোটের কথা কেউ বলছেন না৷ সেবার কংগ্রেস তো ধর্মঘট করেই দায়িত্ব সেরেছিল৷ শুধু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, নো আইডেন্টিটি নো ভোট৷’’

রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা প্রসঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের মহসাচিব জানিয়েছেন, এই রাজ্যের মানুষ দু’ বার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর আস্থা রেখেছেন৷ আইন-শৃঙ্খলার কথা বিচার করলে এটাও ভাবতে হবে, গত সাত বছরে রাজনৈতিক খুন দেখেনি রাজ্য৷ মৃত্যু কেউ চান না৷ তবে মাত্র কয়েকটি ঘটনাকে বড় করে দেখাচ্ছে সংবাদমাধ্যম৷ তিনি বলেন, ‘‘আমরা মানুষের উপর বিশ্বাস রাখি৷ মানুষকে সঙ্গে নিয়েই চলি৷ সংগঠনের ভরসায় ভোটে জিতে আসব৷’’

Advertisement
---