এসআইয়ের মৃত্যু নিয়ে এখনও ধোঁয়াশা

প্রতীকী ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: ভোটের দিনই থানার কোয়ার্টার থেকে উদ্ধার হয় এসআইয়ের ঝুলন্ত দেহ। জগদ্দল থানার সাব ইন্সপেক্টর অরিন্দম কুণ্ডুর এই পরিণতি ঘিরে দানা বাধছে রহস্য। নিছক আত্মহত্যা নাকি এর পিছনে অন্য কোনও কারণ আছে সবদিক খতিয়ে দেখেই তদন্ত করছে পুলিশ।

সোমবার ভোটের ডিউটি ছিল। সারাদিন নিজের দায়িত্ব সামলেছেন অরিন্দম। সন্ধেয় নিজের ঘরে ফিরে খোশ মেজাজেই ছিলেন বলে সূত্রের খবর। কথাবার্তাতেও কোনও অস্বাভাবিকতা লক্ষ্য করেননি সহকর্মীরা। এরপর রাতে খবর ছড়ায় নিজের ঘরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে অরিন্দম আত্মহত্যা করেছেন।

এদিকে ঘটনার পর এক রাত কেটে গেলেও কী কারণে এই মৃত্যু তা নিয়ে কিন্তু ধোঁয়াশাই রয়ে গিয়েছে। তবে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গিয়েছে, পারিবারিক কোনও সমস্যার মধ্যে ছিলেন তিনি। পরিবারের সঙ্গে মনোমালিন্যও হয়। কিন্তু এসব তত্ত্ব কতটা বাস্তবসম্মত তা নিয়ে এখনই নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারছে না জগদ্দল থানার পুলিশ।

কাজের জায়গায় কোনও সমস্যা হয়েছিল কি না সেটাও খতিয়ে দেখার বিষয়। কাজের ক্ষেত্রে কোনওরকম অতিরিক্ত চাপে তিনি ছিলেন কি না সে দিকটিও দেখবে পুলিশ। তবে জগদ্দল থানার কর্তারা এখনই সংবাদমাধ্যমের কাছে মুখ খুলতে চাইছেন না। মঙ্গলবার অরিন্দম কুণ্ডুর মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য বারাকপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে। মৃতের পরিবারের তরফে নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি জানানো হয়েছে।