সাংবাদিক হত্যায় যাবজ্জীবন রাম রহিমের

পাঁচকুলা: জেলবন্দি রাম রহিমের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা দিল আদালত। ২০০২ সালে সাংবাদিককে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত ছিল সেই স্বঘোষিত গডম্যান।

বৃহস্পতিবার ছিল এই মামলার শুনানি। এই ইমামলায় আরও তিনজনকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছিল। এদিন তাদেরকেও যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। হরিয়ানার পাঁচকুলার বিশেষ আদালতে তাদের দোষী সাব্যস্ত করা হয়।

এদিন সকাল থেকেই এই শুনানির জন্য কড়া নিরাপত্তার বন্দোবস্ত করা হয়েছিল। ডেরা সাচা সৌদার সদর দফতরের আশপাশেও মোতায়েন করা হয়েছে কম্যান্ডো বাহিনী। পাঁচকুলা কোর্ট চত্বরে মোতায়েন করা হয় ৫০০ পুলিশকর্মী।

২০০২ সালে ‘পুরা সচ’ নামে এক পত্রিকায় এক ব্যক্তির চিঠি ছাপা হয়। তাতে লেখা হয়েছিল, রাম রহিমের আশ্রমে সাধ্বীরা নিয়মিত যৌন হেনস্থা ও ধর্ষণের শিকার হন। কয়েক মাস পরে ২৪ অক্টোবর ওই পত্রিকার সম্পাদক রামচন্দ্র ছত্রপতি সিরসায় নিজের বাড়ির কাছে গুলিবিদ্ধ হন। তিন সপ্তাহ বাদে তাঁর মৃত্যু হয়।

সিবিআই চার্জশিটে বলে, ডেরার কর্তা কিষেণলাল নিজের লাইসেন্সড রিভলভার ও একটি ওয়াকি টকি দিয়েছিলেন দুই খুনিকে। তাদের নাম কুলদীপ সিং ও নির্মল সিং।

অন্যদিকে ২০১৭ সালের অগস্ট মাসে ধর্ষণের অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হন ৫১ বছরের রাম রহিম। তারপরে হরিয়ানার পাঁচকুলা ও সিরসায় ব্যাপক হিংসা ছড়িয়ে পড়ে। নিহত হন ৪০ জন। আহত হন বহু মানুষ। ডেরা থেকে গিয়ে রাম রহিমকে আটক করে পুলিশ। তারপর থেকে তিনি জেলেই রয়েছেন।