স্মৃতিশক্তির নজির গড়ছে ১৭ বছরের কিশোর। তবে সে কোনও সাধারণ কিশোর নয়, জৈন সন্ন্যাসী মুনি পদ্ম প্রভচন্দ্র সাগর। রবিবার, ২ সেপ্টেম্বর সর্বসমক্ষে তার অনন্য স্মৃতিশক্তীর পরীক্ষা দেবে এই সন্ন্যাসী। একসঙ্গে ২০০ প্রশ্নের উত্তর দিয়ে সেই হবে ”মহা শতাবধানী।”

দিনের পর দিন বিশেষ চর্চার মাধ্যমে নিজের স্মৃতিশক্তি এই পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছে এই মুনি পদ্ম প্রভাচন্দ্র সাগর। একসঙ্গে ২০০ টি প্রশ্নের উত্তর তার কন্ঠস্থ। সিরিয়াল নম্বর ধরে যে কোনও প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করলেই মুহূর্তে উত্তর দেবে এই সন্ন্যাসী।

Advertisement

জৈন ধর্মে যে ২০০টি তথ্য একসঙ্গে মনে রাখতে সক্ষম, তাকে ”মহা সাবধানী” আখ্যা দেওয়া হয়। এই ২০০ তথ্যের মধ্যে থাকবে শ্লোক থেকে শুরু করে অঙ্কের হিসেব। সমার্থক শব্দ, বিপরীত শব্দ, বিদেশি শব্দ, সবটাই থাকবে ওই ২০০ তথ্যের মধ্যে।

ইতিমধ্যেই ”শতাবধানী” আখ্যার অধিকারী এই কিশোর সন্ন্যাসী। ২০১৪-তে মুম্বইতে স্মৃতিশক্তির পরীক্ষায় একসঙ্গে ১০০ তথ্য মনে রাখার নজির গড়েছিল সে। তখনই তাকে এই আখ্যা দেওয়া হয়েছিল। অষ্টম শ্রেনী পর্যন্ত পড়াশোনা করেছে সে। শতাবধানী হওয়ার পরীক্ষার সময় পিছনে জোরে গান বাজিয়ে তার মনোযোগ বিক্ষিপ্ত করার চেষ্টা হয়েছিল।

জৈন সন্ন্যাসী নয়াচন্দ্রসাগরজির শিষ্য এই প্রভাচন্দ্র সাগর। নয়াচন্দ্রসাগরজি জানিয়েছেন, জৈনদের মধ্যেও শতাবধানী হওয়ার ঘটনা বিরল। এর জন্য কঠিন প্রশিক্ষন ও মনঃসংযোগ বাড়ানোর বিশেষ প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। এই পরীক্ষা থেকেই প্রমাণ করা হয় যে, তুখোড় স্মৃতিশক্তি জন্মগত নাও হতে পারে। ধ্যান ও বিশেষ কিছু প্রক্রিয়ায় স্মৃতিশক্তি বাড়ানো যায় অনায়াসে।

----
--