শ্রীনগর: গত তিন দিনে জম্মু কাশ্মীর পুলিশের মোট ১১জন পরিবারের সদস্যকে অপহরণ করেছে জঙ্গিরা গোটা উপত্যকা জুড়ে এখন মৃত্যু ও আতঙ্কের হাতছানি৷ বৃহস্পতিবার সন্ধে থেকে দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামা, অনন্তনাগ, কুলগামে, সোপিয়ানে পুলিশ কর্মীদের বাড়িতে চলে জঙ্গি তাণ্ডব৷ গত ২৪ ঘণ্টাতেই ৫ পুলিশ কর্মীর মোট ৮ পরিবারের সদস্যকে অপহরণ করেছে জঙ্গিরা বলে খবর৷

পরিবারের সদস্যদের বাঁচাতে এবার পিছু হটছে জম্মু কাশ্মীর পুলিশ৷ শুক্রবার হিজবুল মুজাহিদিন কমান্ডার রিয়াজ নাইকোর বাবা আসাদুল্লাহ নাইকোকে ছেড়ে দিল পুলিশ৷ আসাদুল্লাহকে পুলিশ দুদিন নিজেদের হেফাজতে রেখেছিল৷ পুলওয়ামা থেকে তাকে গ্রেফতার করে জম্মু কাশ্মীর পুলিশ৷

Advertisement

সূত্রের খবর এই গ্রেফতারির পর থেকেই জঙ্গি তৎপরতা বেড়ে যায় জম্মু কাশ্মীরে৷ তারপরেই শুরু হয় বিভিন্ন পুলিশকর্মীর বাড়িতে ঢুকে তাদের পরিবারের সদস্যদের অপহরণ৷

জঙ্গিরা চোখের বদলে চোখ নীতি নিয়ে চলছে বলে গোপন সূত্রে খবর৷ কারণ হিজবুল কমান্ডার রিয়াজ ঘোষণা করেছিল পুলিশ নিজের স্বার্থেই তার বাবাকে ছেড়ে দেবে৷ কারণ সেখানে অনেকগুলো নিরীহ প্রাণের জীবন বিপন্ন হওয়ার আশঙ্কা থাকবে৷ আর তার বাবাকে ছেড়ে না দেওয়া হলে খুব খারাপ পরিস্থিতির জন্য তৈরি থাকতে হবে পুলিশ কর্মীদের৷

তবে শুধু হিজবুল কমান্ডারের বাবাই নয়, জঙ্গিদের যেসব পরিবারের সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছিল, তাদের অনেককেই ছেড়ে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে জম্মু কাশ্মীর পুলিশের পক্ষ থেকে৷ তবে কতজনকে ছাড়া হবে, সে বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি৷

প্রথমে পুলওয়ামায় এক পুলিশ কর্মীকে অপহরণ করে জঙ্গিরা৷ কয়েক ঘণ্টা হেনস্থার পর তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়৷ রাতের দিকে ৫ পুলিশ কর্মীর বাড়িতে হামলা চলে৷ অপহরণ করা হয় এক পুলিশ কর্মীর ভাই ও এক পুলিশ কর্মীর ছেলেকে৷ অনন্তনাগ ও পুলওয়ামায় ২ পুলিশ কর্মীর বাড়িতে প্রথমে জঙ্গিরা ঢুকে তাণ্ডব চালায়৷ অপহৃত ২ জনই পুলিশ প্রশিক্ষণ শিবিরে কর্মরত৷

সবমিলিয়ে ৮ জনকে অপরহণ করে জঙ্গিরা৷ সেই ৮ জনের নামও পুলিশ সূত্রে প্রকাশ্যে এসেছে৷ অপহৃত ৮ জন হলেন- জুবির আহমেদ ভাট, আরিফ আহমেদ, ফইজান আহমেদ মাক্রো, সুমার আহমেদ রেদার, গওহর আহমেদ মালিক, জাহুর আহমেদ জারগর,মহম্মদ সফি ও নাসের আহমেদ৷
প্রশ্ন উঠছে, কীভাবে পুলিশি ডেরায় ঢুকে পড়ছে জঙ্গিরা? পুলিশ কর্মীদের বাড়িতে জঙ্গি তাণ্ডব অন্যরকম ত্রাস ছড়াচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে৷ কারণ, পুলিশ সূত্রের খবর, ২৮ বছরে এই প্রথম পুলিশ কর্মীদের পরিবারের সদস্যদের অপহরণ করল জঙ্গিরা৷

----
--