পাথর ছুঁড়ে হামলার মোকাবিলায় সেনার নয়া হাতিয়ার

শ্রীনগর: বুদ্ধিদীপ্ত পদক্ষেপ ভারতীয় সেনার৷ জম্মু কাশ্মীরে পাথর ছুঁড়ে বিক্ষোভের মোকাবিলায় এবার নয়া নিদান তাদের৷ শুক্রবার এই পদক্ষেপে সেনা পেল আশাতীত সাফল্য৷ পাথর নিক্ষেপকারীদের দলে মিশে গেল সেনার বেশ কয়েকজন অফিসার৷ তারপর বিক্ষোভ শুরু হতেই বেছে বেছে হামলাকারীদের আটক করেন তাঁরা৷

শুক্রবার এভাবেই চারজন পাথর নিক্ষেপকারীকে ধরে ফেলতে সক্ষম হল সেনা৷ শ্রীনগর সংলগ্ন এলাকার জামা মসজিদে জুম্মার নামাজের পর এক জায়গায় জড়ো হয় বিক্ষোভকারীরা৷ তারপরেই ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়ে থাকা সিআরপিএফের দিকে ক্রমাগত পাথর ছুঁড়তে শুরু করে৷ সেনার নির্দেশে এলাকায় পুলিশ থাকলেও, তারা এগিয়ে আসেনি৷ তবে তাদের হাতে ছিল জলকামান ও কাঁদানে গ্যাস৷

পড়ুন: অনন্তনাগে পুলিশ জঙ্গি সংঘর্ষ, নিহত এক জঙ্গি

- Advertisement -

সেনার প্ল্যান অনুযায়ী সেই পাথর ছোঁড়ার জবাব দেয়নি পুলিশ৷ এমনকী একটিও টিয়ার গ্যাসের শেল ফাটানো হয়নি বলে সেনার দাবি৷ এতে কিছুটা হতচকিত হয়ে পড়ে বিক্ষোভকারীরা৷ এদের নেতৃত্ব ছিল পাথর নিক্ষেপে অভিযুক্ত ২ তরুণ, যাদের বিরুদ্ধে আগেও সেনার ওপর এই ধরণের হামলার অভিযোগ রয়েছে৷ ।

প্রায় ১০০ জন বিক্ষোভকারী এই হামলায় যুক্ত হয়৷ প্রত্যেকেই পাথর ছোঁড়ার ঘটনায় যুক্ত বলে দাবি করেছে সেনা৷ বেশ কিছুক্ষণ পরে শূণ্যে কাঁদানে গ্যাসের শেল ফাটায় সেনা৷ তখনই বিক্ষোভকারীদের দলে থাকা ছদ্মবেশ ধারণ করা সেনাকর্মীরা বিক্ষোভকারীদের আটক করতে শুরু করে৷

পড়ুন: জম্মু কাশ্মীরের পুলিশ সুপার বদল

সেনার এই চালে ছত্রভঙ্গ হয়ে যায় বিক্ষোভকারীরা৷ ছদ্মবেশে ছিল পুলিশও৷ তারাও গ্রেফতার করতে শুরু করে বিক্ষোভকারীদের৷ এভাবে চারজনকে পাকরাও করা যায়৷ তাদের তানায় নিয়ে আসা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর৷ ছদ্মবেশ ধারণ করে পুলিশকর্মীরা নকল বন্দুক দিয়েও বিভোক্ষকারীদের ভয় দেখান৷ তাতেও কাজ হয়৷ বন্দুকের ভয়ে এলাকা ছেড়ে পালাতে বাধ্য হয় বিক্ষোভকারীরা৷

সিসিটিভিতে ধরা পড়ে সেনা ও পুলিশের যৌথ উদ্যোগে এই অপারেশনের ছবি৷ ২০১০ সালে এই ধরনের অপারেশন স্ট্র্যাটেজি অবলম্বন করে সাফল্য পেয়েছিল পুলিশ। ২ বছর আগে এই ধরনের পদ্ধতি অবলম্বন করে ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে সাফল্য পায় ইজরায়েল পুলিশ৷

প্রসঙ্গত কাশ্মীরের উত্তেজিত জনতাকে নিয়ন্ত্রন করতে সেনা পেলেট গানের পরিবর্তে প্লাস্টিক বুলেটকেই হাতিয়ার করে৷ জনতা-পুলিশ লড়াইয়ের সময় পেলেট গানসের ব্যবহারের ফলে পারিপার্শ্বিক আরও নানা ক্ষতি হয়৷ সেই সমস্ত ক্ষতির পরিমাণ কমাতেই এমন উদ্যোগ নেওয়া হয়৷

Advertisement ---
---
-----