রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর দাবিতে বনধ জম্মুতে

শ্রীনগর: দেশ থেকে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বিতাড়ণ সহ একাধিক ইস্যুতে বনধ চলছে জম্মুতে। বুধবার এই বনধ ডেকেছে জম্মু বার অ্যাসোসিয়েশনের আইনজীবীরা এবং জম্মু-কাশ্মীর ন্যাশনাল প্যান্থারস পার্টি।

বনধের সমর্থনে এদিন সকাল থেকেই পথে নেমে হরতাল এবং স্লোগান দিতে থাকে আইনজীবীরা সহ অন্যান্য বিক্ষোভকারীরা। রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ভারত থেকে বিতাড়ণ ছাড়াও কাঠুয়া ধর্ষণ এবং খুনের মামলার সিবিআই তদন্তের দাবিও করেছেন বন্ধের সমর্থকেরা। শুধু রোহিঙ্গা নয়, অবৈধভাবে ভারতে বসবাসকারী বাংলাদেশিদের বিরুদ্ধেও শ্লোগান উঠেছে এদিনের বিক্ষোভে।

- Advertisement -

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিয়ে সমস্যা নতুন কিছু নয়। বেশ কয়েক বছর ধরেই সেই সমস্যা চলে আসছে। পরিসংখ্যান অনুসারে ভারতে প্রায় লক্ষাধিক রোহিঙ্গা মুসলিম রয়েছে। জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থ রোহিঙ্গা শরণার্থীরা ভয়ঙ্কর বলে দাবি করেছে কেন্দ্র। যদিও সেই তত্ত্ব মানতে নারাজ বিরোধী শিবির।

মায়ানমারের রাখাইন প্রদেশের বাসিন্দা হচ্ছে রোহিঙ্গা মুসলিমরা। ওই সেনাবাহিনীর অত্যাচারের কারণে তারা নিজেদের দেশ ত্যাগ করতে বাধ্য হয়। পড়শি নানা দেশে গিয়ে বসবাস করতে শুরু করে। সেই দলের মধ্যে মিশে পাক গুপ্তচর এবং জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের জঙ্গিরা প্রবেশ করেছে বলে দাবি ভারত সরকারের।

ভারতে প্রবেশ করা রোহিঙ্গাদের মধ্যে বেশিরভাগ শরণার্থীদের মধ্যে অধিকাংশই রয়েছে জম্মু-কাশ্মীরে। পাক সীমান্ত লাগোয়া বিতর্কিত ওই রাজ্য নিয়ে এমনিতেই নিরাপত্তা সংক্রান্ত নানাবিধ সমস্যা রয়েছে। তারই মাঝে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের প্রবেশ বিষয়টিকে আরও জটিল করে তুলেছে তা বলাই বাহুল্য। সেই কারণেই দেশ মায়ানমার থেকে আগত রোহিঙ্গাদের তাড়াতে চাইছে জম্মু বার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য আইনজীবীরা।

এদিন এই বনধের কারণে জম্মুর অনেক জায়গায় দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। যান চলাচল করলেও তা অন্য দিনের থেকে অনেক কম। সমগ্র জম্মু জুড়ে মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী।

Advertisement ---
---
-----