চা বাগানে বসল জনতার দরবার

ছবি: প্রতীকী

স্টাফ রিপোর্টার, জলপাইগুড়ি: শহর লাগোয়া রুগ্ন অবস্থায় পরে থাকা রায়পুর চা বাগানে জলপাইগুড়ি জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শনিবার অনুষ্ঠিত হল ‘জনতার দরবার’। এই বাগানে মোট স্থায়ী শ্রমিক সংখ্যা রয়েছে ৬১৯ জন। এদিনের অনুষ্ঠানে প্রচুর চা বাগান শ্রমিক সহ বারোপাটিয়া ও পাটকাটা গ্রাম পঞ্চায়েতের সাধারণ মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

আরও পড়ুন: নজরুল ইসলামের নাম উল্লেখ করে ‘বেনজির’ অমিত

এদিনের অনুষ্ঠানের মঞ্চ থেকে এলাকায় ছাত্রছাত্রীদের সাইকেল বিলি, খেলোয়ারদের ফুটবল বিলি, কৃষিসামগ্রী সহ একাধিক জিনিস বিলি করা হয়। মঞ্চ থেকে চা বাগানের শ্রমিকদের একাধিক সরকারি পরিষেবা প্রদান করা হয়। বিভিন্ন সরকারি পরিষেবা বিষয়ে স্টল খুলে শ্রমিকদের মধ্যে সচেতন বাড়ানো হয় এদিনের অনুষ্ঠান থেকে। শুধু তাই নয়, কোনও দফতর থেকে সাধারণ মানুষ কি কি সুবিধা পেতে পারে সেই বিষয়টি সকলের মধ্যে তুলে ধরা হয়।

- Advertisement -

আরও পড়ুন: মমতার চিন্তা বাড়িয়ে এবার ঝাড়খণ্ডে NRC জারির প্রক্রিয়া

বারোপোটিয়া নতুন বসগ্রাম পঞ্চায়েতের বিদায়ী প্রধান কৃষ্ণ দাস এবং পাতকাটা গ্রাম পঞ্চায়েতের পঞ্চায়েত বিদায়ী প্রধান হেমব্রম রায়পুর চা বাগানের শ্রমিকদের সমস্যা তুলে ধরেন তারা। বাগানের শ্রমিকদের পিএফ বকেয়া, স্বাস্থ্য, পানীয় জল, ১০০ দিনের কাজ, আবাসনের সমস্যার বিষয় তুলে ধরেন। জেলা শাসক শিল্পা গৌরিসারিয়া বলেন, ‘‘মূলত সরকারি দফতরের পরিষেবাগুলি সকলের কাছে তুলে ধরা। বিভিন্ন সরকারি দফতরের স্টল করা হয়েছে৷ সেখান থেকে চা বাগানের শ্রমিকদের বোঝানো হচ্ছে। এই ধরনের অনুষ্ঠান আগামীতে আরও করা হবে৷’’

আরও পড়ুন: মোদীর মন্ত্রিসভার মন্ত্রীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ! কি বলছেন তিনি?

সাংসদ বিজয়চন্দ্র বর্মন বলেন, ‘‘বন্ধ ও রুগ্ন চা বাগানে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগে কাজ চলছে। জেলা প্রশাসনের সরকারি পরিষেবাগুলি চা বাগানের শ্রমিকদের কাছে পৌঁচ্ছে দিতে এই ধরনের ‘জনতার দরবার’ কর্মসুচী করা হচ্ছে। এতে অনেকটাই সুবিধে পাবে চা বাগানের শ্রমিকেরা বলে আমরা আশাবাদী।’’

Advertisement ---
-----