৯৮ বছরে পা দিল ইছাপুর নবাবগঞ্জের জন্মাষ্টমী উৎসব

বারাকপুর: দেখতে দেখতে ৯৮ বছরে পা দিল উত্তর ২৪ পরগনার ইছাপুর নবাবগঞ্জের রাধা গোবিন্দ জিউ মন্দিরের জন্মাষ্টমী উৎসব৷ প্রতি বছরই এই উৎসবকে ঘিরে নবাবগঞ্জে বহু জনসমাগম হয়৷ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে বসে বিরাট মেলা৷ কার্যত ঝুলনযাত্রার দিন থেকেই জন্মাষ্টমী উৎসবের সূচনা হয় নবাবগঞ্জ এলাকায়৷

মন্দিরের দায়িত্বপ্রাপ্ত দাশুমনি দেবীর পরিবারের আত্মীয় তৃপ্তিকুমার সাহা জানান, ১৩২৭ বঙ্গাব্দের ১৫ই বৈশাখ শ্রীকৃষ্ণভক্ত বিধবা দাশুমনি দাসী নবাবগঞ্জে এই রাধা গোবিন্দ জীউর মন্দির প্রতিষ্ঠা করেন৷ দাশুমনি দাসীর কোনও সন্তান না থাকায় দেবসেবা এবং সাধারণ মানুষের সেবাতেই নিজেকে ডুবিয়ে রাখতেন তিনি৷

- Advertisement -

সে জন্যই তিনি এই মন্দির প্রতিষ্ঠা করেছিলেন৷ সেইসময় থেকেই প্রতি বছর এই নবাবগঞ্জে ধুমধাম করে পালিত হয় জন্মাষ্টমী৷ আজ তিনি নেই ঠিকই, কিন্তু উৎসব ও মেলা কিন্তু চলে আসছে সেই পুরনো ঐতিহ্য ও রীতি মেনেই৷

এলাকার প্রবীণরা অবশ্য বলছেন, সময় বদলের সঙ্গে কিছুটা হলেও এই উৎসবের জৌলুস এখন হাল্কা৷ একটা সময় ছিল যখন এখানে ঝুলনযাত্রার দিন থেকে জন্মাষ্টমীর দিন পর্যন্ত ভক্তদের জন্য ভোগ খাওয়ানোর ব্যবস্থা করা হতো৷ কিন্তু আর্থিক কারণে এখন আর সেই আয়োজন সম্ভব হয় না৷ তবে আজও এই উৎসবকে ঘিরে আবেগের কোনও ভাটা পড়েনি৷

ঝুলন একাদশীর দিন থেকে জন্মাষ্টমীর আগের দিন মোট ১২দিন ধরে শ্রীকৃষ্ণের বিভিন্ন লীলাকে সাজিয়ে তোলা হয়৷ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে রাতে মহাপুজোর আয়োজন হয়৷ আজও নবাবগঞ্জের এই রাধা গোবিন্দ জিউ মন্দিরের জন্মাষ্টমী দেখতে বহু দূর থেকে মানুষ আসেন৷

Advertisement
----
-----