কৃষ্ণ সাজো প্রতিযোগিতায় কেউ বা ত্রিভঙ্গমুরারী, কেউ বা ননীচোরা

স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: কারও বা হাতে ননীর পাত্র৷ কেউ বা রাধার সঙ্গে দোলনায় দুলছে৷ কেউ আবার কদমতলে ত্রিভঙ্গমুরারী হয়ে বাজিয়ে চলেছে বাঁশি৷ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে তমলুকের বর্গভীমা মন্দিরে অভিনব কৃষ্ণ সাজো প্রতিযোগিতায় এমনই একদল খুদে কৃষ্ণর দেখা মিলল রবিবার৷

আরও পড়ুন: ৯৮ বছরে পা দিল ইছাপুর নবাবগঞ্জের জন্মাষ্টমী উৎসব

জন্মাষ্টমী উপলক্ষে গত ১৬ বছর ধরে সংস্কার ভারতীর তমলুক শাখার উদ্যোগে এরকমই কৃষ্ণ সাজো প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হচ্ছে৷ তমলুকের ঐতিহ্যশালী বর্গভীমা মন্দিরে এই প্রতিযোগিতা ঘিরে প্রতি বছরই বহু মানুষের ভিড় হয়৷ এ বছর উপরি পাওনা রবিবার৷

- Advertisement -

জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ এই প্রতিযোগিতা দেখার জন্য মন্দিরপ্রাঙ্গনে এদিন ভিড় জমান৷ অংশ নেয় ৮২জন প্রতিযোগি৷ পুরস্কার হিসাবে প্রথম ও দ্বিতীয় স্থানাধিকারীর হাতে তুলে দেওয়া হয় সোনার পদক৷ সঙ্গে ট্রফি৷ এছাড়াও তৃতীয় থেকে অষ্টম স্থানাধিকারীদের জন্যও ছিল উপহার৷ সঙ্গে অংশগ্রহণকারী সকল খুদের হাতেই সান্ত্বনা পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়৷

আয়োজক সংস্থার তরফে মাধুরী অধিকারী জানান, ১৬ বছর ধরে এই অনুষ্ঠান হচ্ছে৷ এলাকার মানুষও এর জন্য প্রতি বছর অপেক্ষা করে থাকেন৷ অংশগ্রহণকারীরা বয়সে এতই ছোট যে ওরাও খুব মজা করে প্রতিযোগিতাতে অংশ নেয়৷

তমলুকের পাশাপাশি জয় নিতাই গৌর সেবাশ্রমের উদ্যোগে কোলাঘাট রাধামাধব মন্দিরেও কৃষ্ণ সাজো প্রতিযোগি হয়৷ দুই মেদিনীপুরের পাশাপাশি হাওড়ার বহু প্রতিযোগী অংশ নেয়৷ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে গত কয়েকদিন ধরেই কোলাঘাট রাধামাধব মন্দিরে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে৷

আরও পড়ুন: ড্র’য়ে নিস্পত্তি বাঙালির ফুটবল মহাযুদ্ধ

Advertisement ---
---
-----