ট্যুইটারে বন্ধুত্ব করে একে একে নয় তরুণিকে খুন

টোকিও: বয়স বেশি নয়৷ বছর ২৭-এর এই ছেলেটিকে দেখলে কেউ বলবে না এই কাণ্ড ঘটাতে পারে সে৷ ইতিমধ্যেই তাঁর বিরুদ্ধে পুলিশ রেকর্ড বলছে ন’জন মহিলাকে খুন করেছে সে৷ এদের প্রত্যেকেরই বয়স ১৫ থেকে ২৬-এর মধ্যে৷ তাকাহিরো শিরাইশির বিরুদ্ধে এমনই তথ্য উদ্ধার করেছে জাপান পুলিশ৷

তাকাহিরো ইতিমধ্যেই সেদেশে ট্যুইটার কিলার হিসেবে পরিচিত হয়ে গিয়েছে৷ কারণ ট্যুইটারের মত বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে অপরিচিত মেয়েদের সঙ্গে বন্ধুত্ব করত সে৷ পুলিশ জানাচ্ছে, খুব তাড়াতাড়ি মহিলাদের আকৃষ্ট করার ক্ষমতা রয়েছে তাকাহিরোর৷ মহিলাদের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক স্থাপন করে তাদের নিজের বাড়িতে ডাকত এই অভিযুক্ত৷

তাকাহিরোর বাড়িতে যাওয়ার পর আর কেউ ফেরেনি বলে জানিয়েছে পুলিশ৷ সেখানে তাঁদের মেরে ফেলা হত৷ শুধু তাই নয়, শরীরের বিভিন্ন প্রত্যঙ্গ আলাদা করে বিভিন্ন বাক্সে ভরে রাখত তাকাহিরো৷ বিশেষ মিশ্রণ ছড়ানো হত, যাতে কোনওভাবেই দুর্গন্ধ না ছড়ায়৷

- Advertisement -

এমনকী বাক্সগুলির ওপরে ছড়িয়ে রাখত খড়, যাতে সেভাবে বাইরে থেকে বোঝা না যায়৷ পুলিশ সোমবার তাকাহিরোকে গ্রেফতার করে৷ ২০১৭ সালের হ্যালোউইনের দিন এক মহিলার নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার অভিযোগে তদন্ত শুরু করে জাপান পুলিশ৷ তারপরেই তাকাহিরোর বাড়ির সন্ধান পায়৷

রীতিমতো ভয়াবহ অবস্থা ছিল তাকাহিরোর বাড়ির৷ সেখানে তল্লাশি চালিয়েই প্রত্যেকের দেহাংশ উদ্ধার করে পুলিশ৷ পাওয়া যায় ২৪০টি দেহাংশ বিভিন্ন বাক্স থেকে৷

পুলিশ সূত্রে খবর যেসব মহিলাদের আত্মহত্যার প্রবণতা ছিল, সেই সব মহিলাদের সঙ্গেই বন্ধুত্ব পাতাতো তাকাহিরো৷ সে প্রলোভন দেখাত আত্মহত্যার৷ প্ররোচণা দিত বিভিন্ন উপায়ে আত্মহত্যা করতে৷
পুলিশ মনে করছে তাকাহিরো নিজে মানসিক ভাবে অসুস্থ৷ তার চিকিৎসার জন্য আদালতে আবেদন করা হয়েছে৷ পাঁচ মাসের পুলিশি হেফাজতে থেকেই তার চিকিৎসা চলবে বলে জানানো হয়েছে৷ তারপর তার সাজা ঘোষণা করা হবে চূড়ান্ত ভাবে৷

Advertisement ---
---
-----