তেজস্বীর সঙ্গে দূরত্ব বজায় রাখুক রাহুল-কেজরি, পরামর্শ জেডিইউ-এর

নয়াদিল্লি: লালু প্রসাদ যাদবের পুত্র তথা রাষ্ট্রীয় জনতা দলের নেতা তেজস্বী যাদবের সঙ্গে দূরত্ব বজায় রেখে চলুক কংগ্রেস এবং আম আদমি পার্টি। রাজনৈতিক স্বচ্ছতা বজায় রাখতে এই দূরত্ব খুবই দরকার বলে দাবি করেছে জনতা দল ইউনাইটেড।

আরও পড়ুন- মোদী-আদবানির সঙ্গে এক সারিতে গাঁয়ের ছেলে ‘হীরু’

বিহারের মুজফফরপুরে ধর্ষণের ঘটনা ঘিরে রাজ্য জুড়ে শুরু হয়েছে সমালোচনা। যা ঘিরে আন্দোলনে নেমেছে ওই রাজ্যের বিরোধী দল আরজেডি। দলের নেতা তথা রাজ্যের প্রাক্তন উপ-মুখ্যমন্ত্রী তেজস্বী যাদব জাতীয় স্তরের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে দিল্লিতে ধর্নার পরিকল্পনা করেছেন।

- Advertisement -

আরও পড়ুন- এনআরসি’র পক্ষে বিপক্ষে মিছিল, হাতাহাতি তৃণমূল বিজেপি’র

আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব মুজফফরপুর আন্দোলন নিয়ে এই আন্দোলনের মূল লক্ষ্য হচ্ছে জেডিইউ নেতা তথা মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারকে আক্রমণ। সেই লক্ষ্যেই দিল্লির যন্তর-মন্তরে ধর্নায় বসবেন তেজস্বী যাদব। কবেন মোমবাতি মিছিল। সেই কর্মসূচীতে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী এবং আম আদমি পার্টি প্রধান তথা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন তেজস্বী যাদব।

আরও পড়ুন- বরাকের বাঙালিদের কাছে এনআরসি যেন ‘অঘোষিত ভিসা’

আরজেডি নেতা তেজস্বীর আহ্বানে রাহুল গান্ধী এবং কেজরিওয়ালকে সাড়া না দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে জেডিইউ। দলের মুখপাত্র কেসি ত্যাগি বলেছেন, “আমন্ত্রিত দুই নেতাকে অনুরোধ করব যাতে লালু পুত্র তেজস্বীর আহ্বানে তাঁরা সাড়া দেন।” তেজস্বীকে প্রত্যাখ্যান করার যুক্তিও দেখিয়েছেন ত্যাগি। তাঁর মতে, “লালু প্রসাদ যাদবের আরজেডি মূল্যহীন রাজনীতি করে অভ্যস্ত। বিহারে আরজেডি জামানা জঙ্গলরাজ এবং অপরাধের জন্য বিখ্যাত ছিল।”

Advertisement ---
---
-----