জিএসটির জন্য ৪০,০০০ কর্মী চাকরিহারা রাজ্যে

সুরাত : একবছরের ওপর জিএসটি লাঘু হয়েছে৷ এখনও স্থিতিশীলতা ফিরে পায়নি সুরাতের বস্ত্রশিল্পীরা৷ জিএসটির জন্য প্রায় ৪০ হাজার কর্মী চাকরি হারিয়েছেন বলে খবর৷ এমনই তথ্য দিচ্ছে ফেডারেশন অফ গুজরাত ওয়েভারস অ্যাসোসিয়েশন ও পান্ডিসারা ওয়েভারস অ্যাসোসিয়েশন৷ উল্ল্যেখযোগ্য বিষয় হল, এই কর্মীদের সিংহভাগই ওড়িশার বাসিন্দা৷

সুরাত টেক্সটাইল ইন্ডাস্ট্রি জিএসটির জন্য এখনও আর্থিক দিক থেকে স্বচ্ছল হয়নি৷ যার ফলশ্রুতিতে কাজ হারাতে হয়েছে ৪০ হাজার বস্ত্রশিল্পীকে৷ এই দুই অ্যাসোসিয়েশন মিলিত ভাবে একটি চিঠি দিয়েছে ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েককে৷

তাঁর কাছে আবেদন রাখা হয়েছে তিনি যেন এই সব চাকরি হারা কর্মীদের জন্য কোনও ব্যবস্থা করেন৷ চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে সুরাতের মোট বস্ত্রশিল্পীর ৯০ শতাংশই ওড়িশার৷ আর এদের চাকরিই প্রশ্নের মুখে৷ রিপোর্ট বলছে জিএসটির পরে প্রায় ১ লক্ষ পাওয়ার লুম বাতিল করা হয়েছে৷ প্রায় ৬০০০ পাওয়ার লুম ফ্যাক্টরি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে৷ ফলে কর্মহীন হয়েছেন পরায় ৪ লক্ষ শ্রমিক৷

- Advertisement -

শুধু তাই নয়, পাওয়ার লুমের উৎপাদন ক্ষমতাও ৫০ শতাংশ কমিয়ে আনা হয়েছে৷ কাটছাঁট করা হয়েছে উৎপাদিত পণ্যের রপ্তানিতেও৷ কাঁচামালের দাম অত্যাধিক বেড়ে গিয়েছে৷ চাপ পড়েছে উৎপাদনে৷

এই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসার জন্য আবেদন করা হয়েছে ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রীর কাছে৷ তাঁকে দেওয়া চিঠিতে বলা হয়েছে এই সব কর্মীদের চাকরির ব্যবস্থা করতে হবে৷ পাওয়ার লুম সেক্টরকে বাঁচাতে ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি করা হয়েছে৷

Advertisement
---