বাংলাদেশে খুন সাংবাদিক

ঢাকা: ফের প্রকাশ্যে খুন৷ আবারও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুনের ঘটনা৷ এবারে শিকার এক মহিলা সাংবাদিক৷ মঙ্গলবার রাতে পাবনায় বাড়ির কাছেই খুন করা হল স্থানীয় ওয়েব সংবাদ মাধ্যমের সম্পাদককে৷ নিহতের নাম সুবর্ণা আখতার নদী৷

সুবর্ণাকে খুনের ঘটনায় প্রবল চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে পাবনায়৷ ‘দৈনিক জাগ্রত বাংলা’ বলে একটি নিউজ পোর্টালের সম্পাদক ছিলেন সুবর্ণা৷ সেই সঙ্গে একটি টিভি চ্যানেলের হয়ে পাবনার সাংবাদিক ছিলেন৷ তাঁকে কেন খুন করা হল, সেই বিষয়ে প্রশ্ন উঠছে৷ এদিকে সুবর্ণার মৃত্যুর পরেই এলাকাবাসী ক্ষিপ্ত৷ দাবি উঠছে দ্রুত অপরাধীদের গ্রেফতারের৷

সুবর্ণাকে যেভাবে কুপিয়ে খুন করা হয়েছে, সেই একইভাবে বাংলাদেশের ব্লগার ও মুক্তচিন্তা করেন এমন কয়েকজনকেও মেরে ফেলা হয়েছে৷ ফলে সন্দেহ সেই আনসার আল ইসলাম সংগঠনের দিকেই৷ এই সংগঠনটি আনসারুল্লা বাংলা টিম (এবিটি) নামে আগে প্রতিটি মুক্তমনাকে খুনে জড়িত৷

পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইবনে মিজান জানিয়েছেন, মঙ্গলবার রাতে সুবর্ণার বাড়ির কলিং বেল টিপে কয়েকজন তাকে ডাকাডাকি করে৷ দরজা খোলার সঙ্গে সঙ্গে তাকে ঘিরে ধরে এলোপাথাড়ি কোপানো হয়৷ রক্তাক্ত সুবর্ণা ঘরের সমানেই পড়েছিলেন৷ পরে স্থানীয়রা তাকে পাবনা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তিনি মারা যান। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, কয়েকটি মোটর সাইকেলে ১০-১২ জন এসে তাকে কুপিয়ে চলে যায়৷

সম্প্রতি খুন করা হয় বাংলাদেশের এক মুক্তচিন্তার প্রকাশক শাহজাহান বাচ্চুকে৷ কমিউনিস্ট নেতা ও প্রকাশককে খুনের পর এবার খুন হলেন মহিলা সাংবাদিক৷ গত কয়েক বছর ধরে লাগাতার আক্রান্ত হয়েছেন বাংলাদেশি বুদ্ধিজীবীরা৷ খুন হয়ে যাওয়ার তালিকা ক্রমশ দীর্ঘ হচ্ছে৷ শুরুটা হয়েছিল ঢাকার বইমেলায় লেখক হুমায়ুন আজাদকে খুনের চেষ্টা থেকে৷ এরপর একের পর এক ধর্মীয় গোঁড়ামির বিরুদ্ধে সরব ব্লগারদের খুন করা হয়েছে৷

ঢাকার অমর একুশে বইমেলাতেই প্রকাশ্যে খুন করা হয় অভিজিৎ রায়কে৷ তাঁকে বাঁচাতে গিয়ে আক্রান্ত হন স্ত্রী রফিদা আহমেদ বন্যা৷ এরপর একের পর এক মুক্ত চিন্তকদের খুন করা হয়৷

রাজশাহী বিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক তথা জনপ্রিয় লেখক মুহম্মদ জাফর ইকবালকে প্রকাশ্যেই কুপিয়ে খুনের চেষ্টা করা হয়৷ তিনি বেঁচে গিয়েছেন৷ এবার শিকার হলেন মহিলা সাংবাদিক সুবর্ণা৷

----
-----