নয়াদিল্লি: বিচারপতি লোয়ার মৃত্যুর তদন্তে সিট গঠনের দাবি খারিজ হয়ে গেল সুপ্রিম কোর্টে৷ বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র’র নেতৃত্বে গঠিত তিন সদস্যের বেঞ্চ এই পিটিশন খারিজ করে দেয়৷ পিটিশন খারিজ হয়ে যাওয়ায় স্বাভাবিক ভাবেই উল্লসিত গেরুয়া শিবির৷ কেননা কংগ্রেস সহ বিরোধীরা বিচারপতি লোয়ার মৃত্যুকে অস্বাভাবিক বলে দাবি করে৷ তাদের অভিযোগ, লোয়ার মৃত্যু রহস্যজনক৷ এই মৃত্যুর পিছনে বিজেপির হাত থাকতে পারে৷ তাই এদিনের এই রায় বিরোধীদের মুখে ঝামা ঘঁষে দিল বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল৷

এদিন পিটিশনটি খারিজ করে প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র মামলাকারীদের প্রবল ভর্ৎসনা করেন৷ বলেন, ‘‘আদালতের ভাবমূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা করা হয়েছে৷’’ পিটিশনের কোনও গুরুত্ব না থাকায় এদিন সেটি খারিজ হয়ে যায়৷ সেই সঙ্গে কথায় কথায় জনস্বার্থ মামলার নামে পিটিশন দায়ের করা নিয়েও তোপ দাগেন প্রধান বিচারপতি৷ বলেন, ‘‘এখন রাজনৈতিক উদ্দেশ চরিতার্থ করতে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হচ্ছে৷ এবং এই মামলার পিছনে আদালতের মূল্যবান সময়ও নষ্ট হচ্ছে৷’’

Advertisement

২০১৪ সালে পারিবারিক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান বিচারপতি লোয়া৷ এই বিচারপতির এজলাসে সোহরাবুদ্দিন ভুয়ো সংঘর্ষ মামলা চলছিল৷ যে মামলায় নাম জড়ায় বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ সহ একাধিক বিজেপি নেতা, আমলা ও সরকারি আধিকারিকদের৷ তাই প্রথম থেকেই কংগ্রেস সহ বিরোধীরা বিচারপতির মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন তোলে৷ এমনকী তাঁর মৃত্যু নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করে রাহুল গান্ধী সিট গঠনের দাবি জানাতে থাকেন৷

সিট তদন্তের দাবিতে সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন দায়ের করেন আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ৷ এরপর শীর্ষ আদালত মহারাষ্ট্র সরকারের কাছে বিচারপতি লোয়ার ময়নাতদন্তের রিপোর্ট চেয়ে পাঠায়৷ এরপর সব রিপোর্ট খতিয়ে দেখার পর শীর্ষ আদালত সাফ জানিয়ে দেয়, বিচারপতি মৃত্যুতে কোনও রহস্য নেই৷ এতে কোনও সন্দেহ নেই৷

----
--