জলপাইগুড়ি: এশিয়াডে সোনার পদক জয়ী স্বপ্না বর্মনের মায়ের গলার হার ছিনতাই৷ বাড়ির সামনেই বাজার৷ সেই বাজার থেকে ফেরার পথে সোনার হার ছিনতাই করে পালাল তিন দুষ্কৃতী৷ যে মোটরবাইকে দুষ্কৃতীরা এসেছিল সেটি নম্বরপ্লেটবিহীন ছিল৷ বাইকটি নিয়ে তারা গোশালামোড় থেকে রংধামালির দিকে পালায়৷ জলপাইগুড়ির কালিয়াগঞ্জ এলাকার ঘটনা৷

ঘটনায় খবর পেয়েই ছুটে আসেন পুলিশসুপার অমিতাভ মাইতি, কোতোয়ালি থানায় আইসি বিশ্বাশ্রয় সরকার৷ শনিবার সন্ধ্যায় পাটকাটার ঘোষ পাড়ার বাড়ি থেকে স্বপ্না বর্মনের মা বাসনা বর্মন ও স্বপ্নার মাসি কল্পনা রায় ডেঙ্গুয়াঝাড় বাজারে ওষুধ কিনতে যান৷

ওষুধ কিনে ফেরার পথে স্বপ্নার মায়ের গলার থেকে হার ছিনতাই করে পালায় দুষ্কৃতীর দল। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওষুধ কিনে বাড়ি ফেরার সময় জলপাইগুড়ির দিক থেকে দু’টি বাইক এসে বাসনাদেবীর সামনে দাঁড়ায়৷ নম্বরপ্লেটহীন ওই বাইক দু’টি দেখে ঘাবড়ে যায় বাসনাদেবী৷

কিছু বুঝে ওঠার আগেই তাঁর গলার হারটি টান দিয়ে ছিনিয়ে নিয়ে পালায় অভিযুক্তরা৷ এরপর বাইক নিয়ে সোজা রংধামালির দিকে রওনা দেয়৷ দুষ্কৃতীদের মুখে কালো কাপড় বাধা ছিল৷ গলার চেন কেড়ে নেওয়াতে স্বপ্না বর্মনের মা আহত হন৷ রাস্তায় পড়েও যান৷

এই ঘটনার পর পুলিশি নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন এলাকার লোকজন৷ ভরসন্ধ্যায় এই ঘটনায় আতঙ্কিত এলাকার লোকজন৷ বাসনা বর্মন বলেন, ‘‘আমি খুব ভয় পেয়ে গিয়েছি৷ আমার বাড়িতে সকলেই আসে৷ কার মনে কী বুঝতে পারছি না৷ খুব ভয়ে রয়েছি৷ পুলিশ ব্যবস্থা করুক৷’’ পুলিশসুপার অমিতাভ মাইতি বলেন, ‘‘আমি কথা বললাম স্বপ্না বর্মনের মায়ের সঙ্গে৷ এখন ঠিক আছেন৷ তবে তিনি ঘাবড়ে গিয়েছেন৷ আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি৷’’

https://youtu.be/vqaFKVMEL20

----
--