‘ভালো ফলের জন্য দিলীপ-মুকুলকে দল থেকে বের করতে হবে বিজেপিকে’

স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: সাফল্যের সরণিতে হাঁটতে গেলে বিজেপির প্রয়োজন দু’জন নেতাকে দল থেকে বের করে দেওয়া৷ আর সেই দুই নেতা একেবারে যে সে নন৷ একজনের নাম দিলীপ ঘোষ৷ যিনি বিজেপির বর্তমান রাজ্য সভাপতি৷ আর দ্বিতীয় জনের নাম মুকুল রায়৷ যিনি কয়েকমাস আগেই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেছেন৷

এই দুই নেতাই এখন রাজ্য বিজেপির প্রধান মুখ৷ ফলে তাঁদের বের করে দিলে কীভাবে বিজেপির উত্থান হবে? এই প্রশ্নের উত্তর অবশ্য মেলেনি৷ বলা ভালো এই প্রশ্নের উত্তর দেননি রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী তথা উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক৷

আরও পড়ুন: রাতারাতি প্রশাসনে ব্যাপক রদবদল করলেন মুখ্যমন্ত্রী

- Advertisement -

কারণ, তিনিই বৃহস্পতিবার বিজেপির সাফল্যের এই ফর্মুলা প্রকাশ্যে এনেছেন৷ ওইদিন ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচনের গণনা নিয়ে যখন সবাই ব্যস্ত, সেই সময় তিনি উত্তর ২৪ পরগনার মধ্যমগ্রামে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এই মত প্রকাশ করেন৷ তিনি বলেন, ‘‘দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায় ফচকে ছেলে৷ ওরা ফাজলামি করতে এসেছিল। মানুষ ওদের ঘরে ঢুকিয়ে দিয়েছে। বিজেপিকে এজেলাতে ভালো ফল করতে গেলে দিলীপ-মুকুলকে আগে ওদের দল থেকে বের করতে হবে।’’

যদিও উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় বিজেপি যে একেবারে অসফল সেকথাও তিনি বলেননি৷ বরং বিজেপির সাফল্য মেনে নিয়ে তিনি বলেছেন, ‘‘বিজেপি যে সামান্য ভোট পেয়েছে, তা সিপিএমের ভোট। সিপিএম, কংগ্রেস গর্তে ঢুকে গিয়েছে।’’ আর পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিজেপির উত্থানের হিসেব লোকসভা ভোটে বুঝে নেওয়া হবে বলে তিনি জানিয়েছেন৷

আরও পড়ুন: বামেদের সরিয়ে পঞ্চায়েতে দ্বিতীয় স্থান বিজেপির, জয়জয়কার তৃণমূলেরই

উত্তর ২৪ পরগনার ১৯৯টি গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ্যে ৯টিতে হারের মুখ দেখতে হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসকে৷ সেই প্রসঙ্গ টেনে এনে তিনি বলেছেন, ‘‘এবার ১৯৯ টা গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ্যে ৯ টা হারিয়েছি। আমাদের লক্ষ ওই ৯ টা পুনরুদ্ধার করা।’’ আর এই পুনরুদ্ধারের প্রক্রিয়া আগামী বছর লোকসভা নির্বাচনের সময়ই করে ফেলতে চান জ্যোতিপ্রিয়বাবুরা৷ তাই তিনি বলেছেন, ‘‘আমরা ২০১৯ এ বুঝে নেব। এবারের ডাবল ভোট পাব লোকসভায়।’’

একই সঙ্গে তিনি বিজেপিকে হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন৷ বিজেপিকে পাল্টা মারের হুমকিও দিয়েছেন৷ আর যা নিয়ে তীব্র বিতর্ক তৈরি হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে৷ তিনি বলেছেন, ‘‘খুনের বদলা খুন নয়৷ তবে ছেলেদের বলেছি কাল থেকে ওরা বুঝে নেবে। হাতের আর পায়ের গিঁটে গিঁটে মারা হবে। আমরা কোনও বোনের মাথার সিঁদুর মুছব না৷ কোনও মায়ের কোল খালি করব না। ওরা নোংরা, বর্বর, অসভ্য। ওরা খুনের রাজনীতি করেছে।’’

আরও পড়ুন: LIVE UPDATE রাজ্যজুড়ে সবুজ-ঝড়েও পদ্ম-কাঁটায় বিদ্ধ মমতার দল

Advertisement ---
---
-----