তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: দৈন্যতা পরিবারের ছায়াসঙ্গী৷ বাবা মারা যাওয়ার পর বিধবা মা, দৃষ্টিহীন দাদু, বৃদ্ধ ঠাকুমা আর কাকাই ভরসার মুখ৷ কাকা চাষাবাদ করে যেটুকু উপার্জন করেন তাতেই সংসার চলে বাঁকুড়ার সারেঙ্গার পিঙ্কু সিংহ মহাপাত্রদের৷ কিন্তু সব প্রতিকূলতাকে একদিন ঠিক কাটিয়ে ফেলবে, সে মনের জোর পিঙ্কুর রয়েছে৷ অ্যাথলিট তিনি৷ ক্রীড়াজগতে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে দেশের, দশের, পরিবারের মুখ উজ্জ্বল করার স্বপ্ন তাঁর চোখে, মুখে৷ আগামী ১৪ আগস্ট কন্যাশ্রী দিবসের অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রীর আমন্ত্রিত তিনি৷

বাঁকুড়ার সারেঙ্গা ব্লকের প্রত্যন্ত গ্রাম আমঝোরে বাড়ি পিঙ্কুর৷ জঙ্গলমহলের এই সোনার মেয়ের ঝুলিতে ইতিমধ্যেই রয়েছে বহু পুরস্কার৷ ব্লক, মহকুমা, জেলার গণ্ডী ছাড়িয়ে রাজ্যস্তরের একাধিক প্রতিযোগিতায় হাই জাম্প, লং জাম্প, ৫০০ মিটার, ১০০০ মিটার দৌড় প্রতিযোগিতায় সাফল্য পেয়েছেন পিঙ্কু৷

Advertisement

প্রচুর ট্রফি জিতেছেন তিনি৷ কিন্তু এখানেও যে সমস্যা৷ এত পুরস্কার আর ট্রফি বাড়িতে রাখবেন কোথায়৷ ভাঙা মাটির ঘরে বইয়ের তাকে কোনওরকমে গাদাগাদি করে রাখা রয়েছে সেই সব ট্রফি, স্মারক৷ পুরস্কারগুলোতে ধূলো জমছে৷

আরও পড়ুন: বিজেপি সভাপতি অমিত শাহকে আইনি নোটিশ পাঠালেন অভিষেক

খেলাধূলার পাশাপাশি আমঝোর গ্রামের কৃতী এই মেয়ে স্থানীয় কুসুমটিকরী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাশ করে এখন পশ্চিম মেদিনীপুরের গোয়ালতোড় কলেজে বাংলা অনার্স পড়ছেন৷ দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী তিনি৷ জঙ্গলমহলের আঁধার ঘরের আলো এই মেয়ে এবার মুখ্যমন্ত্রীর ডাকে সাড়া দিয়ে আগামী ১৪ আগষ্ট কলকাতায় কন্যাশ্রী দিবসের অনুষ্ঠানে যোগ দেবে। সোমবার কাকাকে সঙ্গে নিয়ে কলকাতার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছে সে।

কন্যাশ্রী দিবসের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে কলকাতা রওনা হওয়ার আগে সোমবার বাড়িতে বসেই পিঙ্কু জানালেন, ‘‘কাকা চাষের কাজ করে সংসার চালান। আমাদের দেখার মতো আর কেউ নেই। তাই বাইরে গিয়ে যে প্রশিক্ষণ নেব তাও সম্ভব নয়৷’’

কাকার উৎসাহ আর সারেঙ্গা ফুটবল একাডেমিতে প্রশিক্ষণই এখন তাঁর মূল ভরসা। ক্রীড়াজগতে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত তো করতেই চায়৷ সঙ্গে সরকারি কোনও চাকরিও লক্ষ্য পিঙ্কুর৷ খেলাধূলার জগতে উন্নতি করতে গেলে যে পরিকাঠামোর দরকার তা জঙ্গলমহলে আর কতটুকুই বা মেলে৷ কোনও সহৃদয় ব্যক্তি বা সংগঠন যদি এগিয়ে আসে তাহলে উপকৃত হন জঙ্গলমহলের এই কন্যা৷ সে কারণেই সকলের কাছে সাহায্য প্রার্থী পিঙ্কু৷

আরও পড়ুন: পুরনো মামলায় হাওড়া আদালতে হাজির রূপা

শুধু পিঙ্কুই নন, ভাইঝির উন্নতি নিয়ে কাকা সুশান্ত সিংহ মহাপাত্রর চোখেও অনেক স্বপ্ন৷ মুখ্যমন্ত্রীর কাছে এ বিষয়ে সাহায্যর জন্য আবেদনও জানিয়েছেন তিনি৷ অন্যদিকে সারেঙ্গা পঞ্চায়েত সমিতির বিদায়ী সভাপতি ধীরেন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, অভাবী ঘরের এই মেয়েটি পড়াশুনার পাশাপাশি খেলাধূলাতেও যথেষ্ট ভালো। মুখ্যমন্ত্রী কন্যাশ্রী দিবসের অনুষ্ঠানে ওকে ডেকেছেন। আগামিদিনে সে যদি কোনও আর্থিক সহায়তা পায় অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারবে৷

https://youtu.be/hism0rpHHzg

----
--