কৃষি ঋণ মকুবের জেরে কর বাড়ল কর্ণাটকে

বেঙ্গালুরু: আদৌ কি কথা রাখলেন কুমারস্বামী? কর্ণাটকের বাজেট অধিবেশন শেষে তা বলা হয়ত কঠিন৷ নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি মেনেই বিপুল পরিমান কৃষক ঋণ মকুব করেছেন কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী৷ পাশাপাশি ভারসাম্য বজায় রাখতে বাড়ালেন করের পরিমান৷ জ্বালানী,বিদ্যুৎ সহ বিভিন্ন খাতে কর বাড়িয়ে আর্থিক ঘাটতি মেরামতিতে কর্ণাটকের জোট সরকার৷

কৃষকবন্ধু হয়েই কথা মতোই কৃষকদের প্রায় ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ঋণ মকুব হয়েছে৷ চাষীরা যাতে সময় মতো ঋণ শোধ করতে পারেন তার জন্য কৃষকদের অ্যাকাউন্টে ২৫ হাজার টাকা দিচ্ছে সরকার৷ এছাড়া কৃষকদের ঋণ দেওয়ার জন্য ৬ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে৷ ইজরায়েল মডেল মেনে শুষ্ক জমিতে সেচের কাজ করার জন্য ১৫০ কোটি টাকা ব্যয় করা হবে৷

এই গোটা কৃষিকেন্দ্রিক বাজেটে রাজ্যকে প্রায় ৩৪ হাজার কোটি টাকার ঘাটতি বহন করতে হবে বলেও জানান কুমারস্বামী৷ ঘাটতি পূরণে সেই আমজনতার উপরই কোপ ফেললেন তিনি৷

- Advertisement -

প্রথম কোপ – পেট্রোলের দাম প্রতি লিটারে ১.১৪ পয়সা বাড়ল, করের পরিমান ৩০ থেকে ২ শতাংশ বেড়ে ৩২ শতাংশ হল
দ্বিতীয় কোপ- ডিজেলের দাম প্রতি লিটারে ১.১২ পয়সা বাড়ল, করের পরিমান ১৯ থেকে বেড়ে ২০ শতাংশ হল
তৃতীয় কোপ- বিদ্যুৎ শুল্ক ইউনিট পিছু ২০ পয়সা বাড়াল

জ্বালানী ও বিদ্যুৎ খাতে এই মূল বৃদ্ধির ফলে কর্ণাটকের আর্থিক বৃদ্ধি কমেছে৷ গতবছরের তুলনায় আর্থিক বৃদ্ধি প্রায় ১ শতাংশ কম৷ যা চলতি আর্থিক বছরে রাজ্যকে বড়সড় ঘাটতির মুখে ফেলবে বলে মনে করা হচ্ছে৷ বৃহস্পতিবার কর্ণাটকে কংগ্রেস-জেডি(এস) জোট সরকারের প্রথম বাজেট পেশ করা হয়৷ কৃ়ষি উন্নয়নকে সামনে রেখেই পেশ হয় বাজেট৷ যা কৃষকবান্ধব হোলেও গণবান্ধব কি না তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন৷

Advertisement
---