বুখারির মৃত্যুর প্রতিবাদে ডাকা বনধে জনজীবন স্তব্ধ কাশ্মীরে

ফাইল ছবি

শ্রীনগর: রাইজিং কাশ্মীর পত্রিকার সম্পাদক সুজাত বুখারির মৃত্যুর প্রতিবাদে বনধ ডাকল বিচ্ছিন্নতাবাদী একটি দল৷ তাদের দাবি বুখারির মৃত্যুর তদন্ত কোনও আন্তর্জাতিক সংস্থাকে দিয়ে করাতে হবে৷ কাশ্মীরে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির পর প্রথম বিচ্ছিন্নতাবাদীরা বনধের ডাক দিল৷

এ দিন সকাল থেকে বনধের জেরে উপত্যকায় স্তব্ধ জনজীবন৷ বন্ধ স্কুল কলেজ ও দোকানপাট৷ রাস্তায় গাড়ি চললেও তা হাতে গোনা৷ একান্ত প্রয়োজন ছাড়া কেউ বাইরে বের হননি৷ বিভিন্ন সরকারি অফিস ও ব্যাংকেও হাজিরা অনেক কম৷ রাস্তায় গাড়ি না থাকায় অফিসে আসতে পারেননি কেউ৷

বৃহস্পতিবার বনধের ডাক দেয় বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন জয়েন্ট রেজিসট্যান্স লিডারশিপ ফ্রন্ট (জেকেএলএফ)। এ দিকে বনধের জেরে কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে তার জন্য সংগঠন প্রধান মহম্মদ ইয়াসিন মালিককে বৃহস্পতিবার সকালেই তুলে নিয়ে যায় পুলিশ৷ তাঁকে নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে কাশ্মীর পুলিশ৷

- Advertisement -

সূত্র মারফত পুলিশ জানতে পারেন ইয়াসিন ‘শান্তিপূর্ণ’ বনধকে হিংত্মাতক চেহারা দিতে পারেন৷ শ্রীনগরে সে সেনা ও পুলিশের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শনের পরিকল্পনা করেছে৷ তাই সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসাবে এই পদক্ষেপ নিয়েছে পুলিশ৷ তবে ইতিমধ্যে ইয়াসিনের আটকের ঘটনায় অশান্ত হয়ে উঠতে শুরু করেছে৷ মাইসুমা ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকায় বিক্ষোভ শুরু হয়েছে৷

গত ১৪ জুন রাইজিং কাশ্মীর পত্রিকার সম্পাদক ও সাংবাদিক সুজাত বুখারিকে শ্রীনগরের প্রেস কলোনিতে গুলি করে খুন করে চার জঙ্গি৷ বুখারির দুই নিরাপত্তারক্ষীকেও খুন করে জঙ্গিরা৷

Advertisement ---
---
-----