পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী আমার রোল মডেল, মন্তব্য প্রাক্তন কাশ্মীরি আমলার

শ্রীনগর: রাজনীতিতে আসার জল্পনা উস্কে দু’দিন আগে আমলা পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন ২০১০ সালে সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় প্রথম হওয়া কাশ্মীরি যুবক শাহ ফয়জল৷ বুধবার পদত্যাগ করলেও দু’বছর আগে এই নিয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছিলেন৷ শুক্রবার সাংবাদিক সম্মেলনে এমনটাই জানান শাহ ফয়জল৷

সদ্য প্রাক্তন এই আমলা জানান, সামগ্রিকভাবে দেশের অবস্থা দেখে তিনি চাকরি থেকে ইস্তফা দেওয়ার মনস্থির করে ফেলেছিলেন৷ কিন্তু পরিবারের তাতে সায় ছিল না৷ তাদের বোঝাতে অনেকটা সময় চলে গিয়েছে৷ তাঁর পরবর্তী পদক্ষেপ যে রাজনীতি তা আগেই জানিয়েছিলেন৷ এমনকী আগামী লোকসভা ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতাও করবেন৷ তবে কোন দলের হয়ে ভোটে লড়বেন তা খোলসা করেননি৷ এদিনও ধোঁয়াশা বজায় রাখলেন৷ তবে জানান, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী ও পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তাঁর রোল মডেল৷ তাদের রাজনীতির স্টাইল বড়ই পছন্দের৷ অকপট স্বীকারোক্তি শাহ ফয়জলের৷

- Advertisement -

এদিন সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘‘এখনই মূলস্রোতের রাজনীতিতে আসছি না৷ আগে কাশ্মীরিদের মন বুঝতে চাই৷ তাদের কথা শুনতে চাই৷ তারপর এই নিয়ে সিদ্ধান্ত নেব৷’’ আমলা পদ থেকে পদত্যাগ করার পর প্রথমে জল্পনা ছড়ায় তিনি বোধহয় ন্যাশনাল কনফারেন্সে যোগ দিতে চলেছেন৷ জল্পনার কারণ ওমর আবদুল্লার একটি ট্যুইট৷ জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ট্যুইট করে লেখেন, আমলাতন্ত্রের ক্ষতি, কিন্তু রাজনীতির লাভ৷ প্রশ্ন ওঠে তবে কী ন্যাশনাল কনফারেন্সের হয়ে লড়াই করবেন তিনি? পরে ওমর জানান, তিনি ফয়জলকে রাজনীতিতে স্বাগত জানিয়েছেন৷ দলে নয়৷ ফয়জল কোন দলে যাবে সেটা তাঁর সিদ্ধান্ত৷