তিরুবনন্তপুরম: ছন্দে ফিরছে কেরল। কিন্তু দুঃস্বপ্নের ওই দিনগুলো ভুলতে পারেনি কেউই। কয়েক’শ প্রিয়জনকে হারিয়ে কেরল এখন আর উৎসব চায় না। শুধু ঈশ্বরের কাছে একটাই প্রার্থনা এমনদিন যেন আর কখনও দেখতে না হয়। তারা শুধু এখন স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চায়।

এবার সে রাজ্যের সরকারও সিদ্ধান্ত নিল, বছরভর কোনও সরকারি উৎসবে মাতবে না রাজ্য। সেই অর্থ পুনর্বাসনের কাজে লাগানো হবে। এমনটাই জানিয়েছে সরকার।

আরও পড়ুন: তীর্থে বেরিয়ে রাহুলের আমিষ ভোজন নিয়ে তুঙ্গে বিতর্ক

কেরলের আন্তর্জাতিক চলচিত্র উৎসবের পাশাপাশি অন্য সবধরনের ইয়ুথ ফেস্টিভেল সবকিছুই এবছরের মতো বাতিল করা হয়েছে। কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারায়ী বিজয়ন বিশ্ব জুড়ে ছড়িয়ে থাকা সমস্ত মালায়ালি মানুষের কাছে আবেদন জানিয়েছেন কেরলের এই দুর্দিনে পাশে দাঁড়ান, সাহায্য করুন।

প্রসঙ্গত,বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রী জানান, বন্যার্ত মানুষের সাহায্য, ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চলের পুনর্নির্মাণের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর ত্রান তহবিল থেকে ৭৩৮ কোটি টাকা ব্যায় করা হয়েছে।

শতাব্দীর এই ভয়াবহতম বন্যায় কয়েক হাজার মানুষ গৃহহীন। আশ্রয় নিয়েছেন কেরলের বিভিন্ন ত্রাণশিবিরে। প্রকৃতির করাল গ্রাসে প্রাণ হারিয়েছেন ৪৭০ জন মানুষ। ২০ হাজার কোটি টাকার ক্ষতির বোঝা মাথায় নিয়ে কেরল এখন চূড়ান্ত অসহায়। তবে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা মানুষ কেরলের পাশে দাঁড়িয়েছে। ইতিহাস সাক্ষী এমন দিন কেরল এর আগে দেখেনি।

----
--