ঘুরে ঘুরে ত্রাণ সংগ্রহের পথে কেরল সরকার

তিরুঅনন্তপুরম: বিদেশি ত্রাণ ঘিরে তুঙ্গে বিতর্ক৷ সমাধানের পথ বার করল কেরল সরকার নিজেই৷ বিদেশি ত্রাণ পেতে পথে নামার সিদ্ধান্ত নিল কেরল মন্ত্রিসভা৷ বিদেশে গিয়ে ত্রাণ সংগ্রহের পথে বিজয়ন ও তাঁর মন্ত্রীরা৷ দেশের বাইরে বিভিন্ন কেরেলিয়ান কমিউনিটির সঙ্গে যোগায়োগ করে ত্রাণ সংগ্রহের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেরল প্রশাসন৷ অর্থ সংগ্রহের জন্য তৈরি হয়েছে বিশেষ ট্রাস্ট বোর্ড৷

সংযুক্ত আরব আমিরশাহী, ওমান, বাহারিন, কাতার, কুয়েত, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, ব্রিটেন, জার্মানী, আমেরিকা ও কানাডা থেকে ত্রাণ সংগ্রহ করবে কেরল সরকার৷ বিভিন্ন দেশে যাবে সরকারের প্রতিনিধি দল৷ প্রত্যেকটি দলে থাকবেন ২ থেকে ৩ জন রাজ্যের মন্ত্রী৷ ইতিমধ্যেই বিভিন্ন দেশের কেরলিয়ান কমিউনিটিকে ত্রাণ সংগ্রহের বার্তা দিয়েছে বিজয়ন সরকার৷ শুক্রবার থেকে মন্ত্রিসভার বৈঠক দফায় দফায় ডাকা হচ্ছে৷ বিভিন্ন জেলা শাসকদের নিয়েও বৈঠক করেছেন বিজয়ন৷

পড়ুন:কেরলের পর এবার প্রকৃতির গ্রাসে নাগাভূমি

- Advertisement DFP -

মালায়ালি ছাড়াও অন্যান্য ভারতীয় কমিউনিটিও ত্রাণ দিতে পারবে বলেও জানিয়েছেন বিজয়ন৷ তিনি জানিয়েছেন, কেরলকে সাহায্য করতে হাত বাড়িয়েছেন দেশ বিদেশের মানুষ৷ এখনও পূর্ণ সংস্কারর জন্য কেরলের টাকা প্রয়োজন৷ আর সেই কারণে ত্রাণ সংগ্রহে পথে নামার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেরল সরকার৷ কেরলের বিভিন্ন স্কুলেও ঘুরবে সরকারের প্রতিনিধি দল৷ বিজয়ন জানান, বিভিন্ন স্কুলের পড়ুয়ারা ত্রাণ দিতে ইচ্ছুক৷ তাদের প্রত্যেকের থেকে সামর্থ অনুসারে অনুদান নেবে সরকার৷

বন্যা বিপর্যস্ত কেরলের পুনর্গঠনে বিদেশি অনুদান নেওয়া হবে না, যা অনেক আগেই জানিয়ে দেয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক৷ খবর ছড়ায় কেরলের সাহায্যে আরব আমিরশাহী ৭০০ কোটি টাকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করে৷ পরে আর্থিক অনুদানের চূড়ান্ত ঘোষণা হয়নি বলেও জানায় আরব৷ এই সবকিছুর মধ্যেই বিদেশি অনুদান থেকে বঞ্চিত হচ্ছে কেরল বলে অভিযোগ ওঠে৷ কেন্দ্রের তরফে জানান হয়, ব্যক্তিগত ভাবে বিদেশ থেকে কেরলের জন্য অনুদান আসলে কেরল তা গ্রহণ করতে পারে৷ সেই পথ ধরেই বিদেশি ত্রাণ সংগ্রহে বিজয়ন সরকার৷

এখনও পর্যন্ত কেরলের মুখ্যমন্ত্রী রিলিফ ফান্ডে জমা পড়েছে ১ হাজার ২৬ কোটি টাকা, ৪ লক্ষ ১৭ হাজার কোটি টাকার অনুদান মিলেছে অনলাইনে৷

Advertisement
----
-----